কুষ্টিয়ায় বিএনপির তদন্ত কমিটির সদস্যদের ওপর হামলা

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলায় বিএনপি নেতাকর্মীদের গণপদত্যাগের ঘটনা তদন্ত করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন তদন্ত কমিটির সদস্যরা।

এ সময় তাদের লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ ও কমিটির ব্যবহৃত মাইক্রোবাস ভাঙচুর করেন বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। এতে পাঁচজন আহত হন।

শনিবার দুপুরে মাইক্রোবাসযোগে তদন্ত কমিটি তদন্ত করতে ভেড়ামারায় গেলে তাদের ওপর এ হামলা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গত ১০ জানুয়ারি ভেড়ামারা উপজেলা বিএনপি ও যুবদলসহ বিভিন্ন সহযোগী সংগঠন থেকে অন্তত তিন শতাধিক নেতাকর্মী পদত্যাগ করেন। এ ঘটনায় জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক সাজেদুর রহমান বাবলুর নেতৃত্বে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

শনিবার বেলা ১২টার দিকে তদন্ত কমিটির সদস্যরা ভেড়ামারায় এসে অভিযুক্ত সাবেক সাংসদ শহিদুল ইসলামের বাড়িতে যান। এ সময় পদত্যাগকারীরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়।

এ সময় হামলাকারীরা তদন্ত কমিটির মাইক্রোবাস ভাঙচুর করে। হামলায় ভেড়ামারা পৌর যুবদলের আহবায়ক  মোশাররফ হোসেন, বিএনপি নেতা বকুল হোসেনও মোশাররফসহ ৫জন আহত হয়। এদের মধ্যে দুজন গুরুতর আহত হয়েছেন। এদেরকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

ভেড়ামারা-মিরপুর আসনের সাবেক সংসদ সদস্য জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি অধ্যাপক শহীদুল ইসলাম জানান, পরিকল্পিতভাবে জাসদের নেতাকর্মীদের ইন্ধনে এ হামলা হয়েছে।

তবে পদত্যাগকারী ভেড়ামারা উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার-উল আজিম বাবু বলেন, তদন্ত কমিটি না জানিয়ে শহিদুল ইসলামের বাড়িতে গেলে বিএনপির কর্মীরা ক্ষুব্ধ হয়ে হামলা করেছেন। তারা মহাসচিব পর্যায়ে তদন্ত চান বলে জানান।

এ বিষয়ে ভেড়ামারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম জানান, বিএনপি থেকে সম্প্রতি পদত্যাগকারীরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে। পৌর নির্বাচনে আর্থিক লেনদেন করে দলীয় প্রার্থীর পক্ষে-বিপক্ষে অবস্থান করা নিয়ে এদের মধ্যে বিরোধ দেখা দিয়েছে।

Facebook Comments