জনগণ খালেদাকে ফের প্রত্যাখ্যান করেছে: হানিফ

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল আলম হানিফ বলেছেন, ‘‘ খালেদা জিয়া মুক্তিযুদ্ধ ও শহীদদের সংখ্যা নিয়ে যে কটাক্ষ করেছে তা জনগণ ভালভাবে নেয়নি। তাই নির্বাচনে জনগণ তাকে  প্রত্যাখ্যান করেছে।’’

বৃহস্পতিবার দুপুরে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

হানিফ বলেন, ‘‘তিনি মুক্তিযুদ্ধকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে নিজেকে একজন পাকিস্তানি হিসেবে জনগণের কাছে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। বাংলাদেশের জনগণ পাকিস্তানি খালেদার নেতৃত্ব দেখতে চায় না। সেই কারণেই জনগণ তাকে আবারও প্রত্যাখ্যান করেছে।’’

পৌর নির্বাচনের ফলাফল মেনে নিতে বিএনপির প্রতি অনুরোধ করে হানিফ বলেন, ‘‘বিএনপি ইতোমধ্যেই ফলাফল প্রত্যাখ্যানের মাধ্যমে জনগণের রায়কে প্রত্যাখ্যান করেছে এবং ভোটার ও জনগণকে অপমান করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আমরা অনুরোধ করব, এই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন, ফল মেনে নেন।’’

বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুলের কারচুপির অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে হানিফ বলেন, ‘‘মির্জা ফখরুল বলেছেন, এমন নির্বাচন না কি উনি দেখেননি। তিনি কি বাংলাদেশের নাগরিক, না কি অস্ট্রেলিয়া থাকেন? আয়নায় চেহারা দেখলে নিজের চেহারা ভেসে উঠবে।’’

তিনি বলেন, ‘‘নির্বাচনে দু’একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটেছে। নির্বাচনী ইতিহাস ঘাঁটলে এর চেয়ে বেশি সহিংসতার খবর দেখা যায়। ভোটে কারচুপি হলে আমাদের প্রার্থীরা এ অল্প ব্যবধানে হারতেন না, জিতে জেতেন।’’

পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের অর্জন প্রসঙ্গে হানিফ বলেন, ‘‘বিএনপি এই নির্বাচনে অংশ নিয়ে প্রমাণ করেছে বর্তমান সরকার বৈধ। এ রাজনৈতিক দলটি (বিএনপি) সরকারকে মানে না। নির্বাচন কমিশনকে মানে না। এই নির্বাচন কমিশনের অধীনে পৌরসভা নির্বাচন করতে বাধ্য হয়েছে তারা। এই নির্বাচনের এটাই আওয়ামী লীগের বড় অর্জন।’’

ভোটকেন্দ্রে বিএনপি প্রার্থীর এজেন্ট না থাকা প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে হানিফ বলেন, ‘‘বিএনপি একটি মেরুদণ্ড ভাঙা দল, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের কারণে জনবিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। নিয়মতান্ত্রিক রাজনীতি করার মতো সাংগঠনিক শক্তিও নেই। এ জন্য বিভিন্ন স্থানে তারা এজেন্ট দিতে পারেনি।’’

নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কড়া অবস্থানের প্রশংসা করে হানিফ বলেন, ‘নির্বাচন উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কঠোর অবস্থানে ছিল। তাদের দৃঢ় অবস্থানের কারণে আমাদের কিছু নেতাকর্মীও আহত হয়েছেন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন করেছে বিধায় তারা প্রশংসা পেতে পারে।’

সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ড. আবদুর রাজ্জাক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, দপ্তর সম্পাদক আব্দুস সোবাহান গোলাপ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন ।

Leave a Reply