চিটাগাং ভাইকিংসের প্রশংসায় তামিম

tamimস্পোর্টস ডেস্কঃ নিজের বাড়ি, নিজের মাটি। তবু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের(বিপিএল) দুটি আসর চলে গেলেও চাপানো হয়নি চট্টগ্রামের জার্সি। তবে এবার ভাগ্য ফিরেছে ড্যাশিং এই ওপেনারের। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে তামিম ইকবাল খেলবেন চিটাগাং ভাইকিংসয়ের হয়ে। সঙ্গে রয়েছেন বড় ভাই নাফিস ইকবাল।

নিজের এবং দলের উপর ভরসা যেন আকাশছোঁয়া। অপেক্ষা শেষে পছন্দের দলে খেলতে পারার উচ্ছ্বাস তামিমের কন্ঠে। চট্টগ্রামের আইকন প্লেয়ার হওয়ার আনন্দ নিজেই প্রকাশ করলেন। নিজের এবং চিটাগাং ভাইকিংসের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে এটা বলাই যায়।

তামিম বলেন, ‘আমি চাচ্ছিলাম আমি যেন চিটাগাংয়ের হয়ে খেলতে পারি। এমনিতেই তো আমার নিজের শহরের নামে দল। একটু বেশি তো আগ্রহ ছিলোই। আর এই দলের মালিক যারা আছেন, আমার মনে হয়েছে ওনারা খুবই ভালো। তারা জানেন কিভাবে সম্মান দিতে হয় খেলোয়াড়দের। তাদের আচরণ আমার কাছে খুব ভালো লেগেছে। সব মিলিয়ে খুব চাচ্ছিলাম যেন চিটাগং দলে খেলি। খুব ভালো লাগছে যে, সেটা হয়ে গেছে।’

চিটাগাং ভাইকিংসে আরো আছেন বড় ভাই নাফিস, আছেন কামরুল ইসলাম রাব্বি। কিছুটা যেন চট্টগ্রাম ভিত্তিকই দল পেয়েছেন তামিম। কিছুটা হলেও স্বস্তিতে আছেন তিনি।

তামিম বলেন, শুরুতে তো কথা হয়েছিলো যে বিসিবি আইকন পছন্দ মতো বণ্টন করে দেবে। তখনই কিন্তু ওনারা আমার সঙ্গে একবার বসেছিলেন। আমাকে তখন বলেছিলেন, ‘জেতা-হারা বা টাকা-পয়সাই শেষ কথা নয়। কথা হলো, আমরা চট্টগ্রামের দলই বানাতে চাই। চ্যাম্পিয়ন টিম করতে চাই বলে, চিটাগংয়ের কোনো খেলোয়াড় নেবো না, তা নয়। এটা আমার খুব ভালো লেগেছে।’

জাতীয় দলের বর্তমান ও সাবেক ক্রিকেটার নিয়ে বেশ ভালোভাবেই দল গুছিয়ে নিয়েছে চিটাগাং ভাইকিংস। সঙ্গে আছে বিদেশের নাম করা ক্রিকেটাররা। দেশের মধ্যে জাতীয় দলের উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান এনামুল হক বিজয়, ছক্কা নাইম খ্যাত নাইম ইসলাম, ফাস্ট বোলার তাসকিন আহমেদ, স্পিনার ইলিয়াস সানি, এনামুল হক জুনিয়রের মতো ক্রিকেটাররা আছেন।

বিদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে আছেন তিলকারত্নে দিলশান, কামরান আকমল, মোহাম্মাদ আমির, রবিন পিটারসনের মতো ক্রিকেটাররা।

নভেম্বরের ২২ তারিখ থেকে মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) তৃতীয় আসর। একই সঙ্গে একই দলের খেলোয়াড়রা লড়বেন তাদের নিজ নিজ দলের হয়ে। নিজের এবং দলকে এগিয়ে নেয়ার জন্য ব্যাটে, বলে লড়াই জমাবেন।

Facebook Comments

Leave a Reply