শেষ দিনে সংসদে ৭টি বিল পাস

songsodএকুশেরআলো২৪ডেস্ক: জাতীয় সংসদের সমাপনী দিবসে বাংলাদেশ তাঁত বোর্ড বিলসহ সাতটি বিল পাস হয়েছে। যারমধ্যে গত মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে উত্থাপিত বিলও রয়েছে। একদিনের মধ্যে এসব বিলের ওপর রিপোর্ট প্রদানের সময় বেধে দেয়া হয়েছিল। কার্যপ্রণালী বিধিতে বুধবার চারটি বিলের স্থায়ী কমিটির রিপোর্ট উপস্থাপনের

জন্য নির্ধারিত ছিল। বুধবার রিপোর্ট উত্থাপনের পর বিধি স্থগিত করে সম্পূরক বিধিতে স্থায়ী কমিটির উত্থাপিত চারটি বিল পাস করার জন্য প্রস্তাব করা হয়।

তবে একদিনের নোটিশে স্থায়ী কমিটির রিপোর্ট নিয়ে এভাবে ‘তড়িঘড়ি’ করে বিল পাসের সমালোচনা করে স্বতন্ত্র সদস্য ফজলুল আজিম বলেছেন, সংসদীয় ইতিহাসে এটা খারাপ নজির হয়ে থাকবে। সংবিধানে এভাবে বিল পাস অনুমোদন করেনা। বিল পাসের ক্ষেত্রে বিধি অনুসৃত হচ্ছে না।

তিনি বিধি উল্লেখ করে বলেন, বিল পাস করার তিন দিন পূর্বে নোটিশ দেয়ার বিধান রয়েছে। তাই তিনি এভাবে বিলগুলি পাস না করার জন্য আহবান জানান। তার আপত্তি গৃহীত না হওয়ায় তিনি ওয়াক আউট করেন।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বুধবার জাতীয় সংসদের ১৯তম অধিবেশনে বিলগুলি পাস করা হয়। ফজলুল আজিমের আপত্তি প্রসঙ্গে স্পিকার বলেন, সংসদের অধিবেশন শেষ হয়ে যাচ্ছে বলে সম্পূরক বিধিতে বিলগুলো পাস করার প্রস্তাব আনীত হয়েছে।

এর আগে চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ আবদুস শহীদ কার্যপ্রণালী বিধি ব্যাখ্যা দেন। ভূল ব্যাখ্যা দেওয়া হচ্ছে বলে তিনি তীব্র আপত্তি জানান। এ সময় স্পিকার সরকারী দলের জেষ্ট্যসদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্তকে আলোচনায় অংশ নেওয়ার আহবান জানান। তবে তিনি আলোচনায় অংশ নেননি। এর আগে স্বতন্ত্র সদস্য ফজলুল আজিম আনীত জনমত যাচাইসহ বিভিন্ন সংশোধনী প্রস্তাব কন্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়। পরে সরকার দলীয় সদস্যদের কন্ঠভোটে বিলগুলো পাস হয়।

বুধবার জাতীয় সংসদে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (সংশোধন) বিল ২০১৩, ভোজ্যতেলে ভিটামিন এ সমৃদ্ধকরণ বিল ২০১৩ পাস হয়। সম্পূরক বিধিতে পাশকৃত বিলের মধ্যে রয়েছে, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যাটিজিক স্টাডিজ বিল ২০১৩, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট (সংশোধন) বিল ২০১৩, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (সংশোধন) বিল ২০১৩ ও বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (সশোধন) বিল ২০১৩।

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সংশোধন বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। বিলটির ওপর জনমত যাছাইয়ের প্রস্তাব করে নোটিশ দেন স্বতন্ত্র সদস্য ফজলুল আজিম। তিনি বিলটি তড়িগড়ি পাশের অভিযোগ করে বলেন, এটা ভালো আলামত নয়। আমরা হয়তো থাকবো না কিন্তু সংসদ থাকবে। এটা খারাপ নজির হয়ে থাকবে। বিল উত্থাপিত হলো। একদিনের মধ্যে রিপোর্ট পেশ করতে হবে বলা হলো। একদিনের মধ্যে পাসা করা হচ্ছে। এটা তামাশা।

জবাবে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, এখানে তাড়াহুড়া করার বিষয় নয়। সময় নির্ধারিত আছে কমিয়ে আনা। ক্ষমতা স্পিকারের ক্ষমতা রয়েছে। কার্যবিধি অনুযায়ী দেয়া হয়েছে। বিধিবিধান অনুযায়ী সুযোগ দিয়েছেন। পরে বিলটি কণ্ঠভোটে পাস হয়।

বাংলাদেশ তাঁত বোর্ড বিল: সরকার বোর্ডের চেয়ারম্যানসহ বোর্ড সদস্য নিযুক্ত করবেন। এছাড়া বোর্ডে জাতীয় তাঁতী সমিতির সভাপতি, জাতীয় সমবায় শিল্প সমিতি লিমিটেড, সরকার কর্তৃক মনোনীত ২জন তাঁতীসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বোর্ডের ১১জন প্রতিনিধি তিন বছরের জন্য বোর্ডের সদস্য হবেন।

বিলের উদ্দেশ্য সম্পর্কে বলা হয়েছে, তাঁতী সমিতির মাধ্যমে হস্তচালিত তাঁতশিল্পসমুহকে কাঁচামাল সরবরাহ ও তাদের উৎপাদিত পণ্য বোর্ড কর্তৃক ক্রয়, গুদমজাতকরণ, উৎপাদিত পণ্যের গুণগত মান ও রপ্তানীর জন্য প্রস্তুতকারকের সনদ প্রদান এবং তাঁতজাত পণ্য দেশে বিদেশে রপ্তানী ও বাজারজাতকরণের বিধান রেখে বাংলাদেশ তাঁত বোর্ড বিল প্রণীত হয়েছে।

দেশের বস্ত্র চাহিদার ৬৩ভাগ উৎপাদন করে এ দেশের তাঁত শিল্প। প্রত্যক্ষ ও প্ররোক্ষভাবে দেশের ১৫ লাখ লোক নিয়োজিত রয়েছে। এই শিল্পের বিকাশের লক্ষে দি বাংলাদেশ হ্যান্ডলুম বোর্ড অর্ডিন্যান্স ১৯৭৭ রহিত করে স্থায়ী কমিটির সুপারিকৃত আকারে বাংলাদেশ তাঁত বোর্ড আইন ২০১৩ গৃহীত হয়। আইনটি মন্ত্রী সভায় অনুমোদিত হয়। উল্লেখ্য দেশের দরিদ্র তাঁতীদের আর্থ সামাজিক অবস্থার উন্নয়নে ১৯৭৭ সালে রাষ্ট্রপতির জারীকৃত দি বাংলাদেশ হ্যান্ডলুম বোর্ড অর্ডিন্যান্স-এর মাধ্যমে একটি স্বতন্ত্র বোর্ড গঠিত হয়। পরে ১৯৯৮ সালে এটি সংশোধিত হয়। ১৯৯০ সালে দি বাংলাদেশ হ্যান্ডলুম বোর্ড (এমেন্ডমেন্ট) এ্যাক্ট-এর গেজেট জারি হয়।

Facebook Comments