ধর্ষণে ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ১৩ বছরের কিশোরী

নিজস্ব প্রতিবেদক : খুলনার দিঘলিয়া উপজেলায় ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রী (১৩)। বর্তমানে মেয়েটি সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা। এ ঘটনায় শাহিন (৫০) নামের এক ব্যক্তিকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে।

বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) দিঘলিয়া থানায় মামলাটি করেন মেয়েটির বাবা। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে আগস্ট মাস পর্যন্ত আট মাসে মেয়েটিকে একাধিকবার ধর্ষণ করেছেন শাহিন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, বিভিন্ন প্রলোভনে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে নিজ ঘরে মেয়েকে প্রথম ধর্ষণ করেন শাহিন। এরপর বিভিন্ন সময় তাকে ধর্ষণ করেন। এরই মধ্যে মেয়েটির শারীরিক পরিবর্তন দেখা দেয়। একপর্যায়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে রোববার (২৯ আগস্ট) তাকে নগরীর ফুলবাড়িগেট দারোগা বাজারে একটি ক্লিনিকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে জানা যায় মেয়েটি সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ১৩ বছর বয়সী মেয়েটির বাবা-মা জুট মিলে শ্রমিকের কাজ করেন। বাবা-মা বাড়িতে না থাকার সুযোগে প্রতিবেশী শাহিন তাকে ধর্ষণ করে আসছিলেন।

দিঘলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান উল্লাহ চৌধুরী মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Facebook Comments