ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস করোনার সংক্রমণের কারণে সীমিত পরিসরে পালিত হচ্ছে

নিউজ ডেস্ক : করোনার সংক্রমণের কারণে এবার সীমিত পরিসরে পালিত হচ্ছে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস। শনিবার সকাল ছয়টায় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে শুরু হয় দিবস পালনের আনুষ্ঠানিকতা।

মেহেরপুরের মুজিবনগর মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিকেন্দ্রে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন জেলা প্রশাসক মুনসুর আলম খাঁন। এসময় ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মুজিবনগর স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের একটি প্রতিনিধি দল।

এদিকে মুজিবনগর দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সকালে ধানমন্ডি ৩২ এ প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে শ্রদ্ধা জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, আফজাল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বি এম মোজাম্মেল হক, মির্জা আজম, শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আবদুস সবুর প্রমুখ।

আজ থেকে ৫০ বছর আগে ১৯৭১ সালের এই দিনে মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলা গ্রামের আম্রকাননে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে শপথ গ্রহণ করে। পরে বৈদ্যনাথতলাকে মুজিবনগর হিসেবে নামকরণ করা হয়।

মুজিবনগর সরকারের নেতৃত্বে ৯ মাসের সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশ স্বাধীন হয়।

Facebook Comments