মালদ্বীপের বাংলাদেশ দূতাবাসে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও জাতীয় দিবস উদযাপন

মোহাম্মদ মাহামুদুল মালদ্বীপ থেকে : যথাযোগ্য মর্যাদা এবং উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মালদ্বীপে বাংলাদেশ দূতাবাসে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী এবং জাতীয় দিবস ২০২১ উদযাপিত হয়েছে ।

দিবস উপলক্ষে দূতাবাস চত্বরে ২৬ মার্চ শুক্রবার সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিনের কর্মসূচি শুরু হয় ।

সন্ধ্যায় আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মালদ্বীপের দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ নাজমুল হাসান ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে তরজমা সহ পবিত্র কুরআন তেলাওয়াত এবং জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে মূল আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শুরু করা হয় ।

পরে রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী প্রদত্ত বাণী পাঠ করা হয় ।

আলোচনা অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন দূতাবাসের প্রথম সচিব ও দূতালয় প্রধান মোঃ সোহেল পারভেজ।

মালদ্বীপে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন আহমেদ মুত্তাকি ।

এরপর মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের উপর ভিত্তি করে একটি ভিডিও ক্লিপ প্রদর্শন করা হয় ।

আলোচনার শেষ পর্যায়ে রাষ্ট্রদূত স্বাধীনতা দিবসের তাৎপর্য ব্যাখ্যা করে এবং বর্তমান সরকারের অগ্রগতি ও সাফল্য নিয়ে মূল্যবান বক্তব্য প্রদান করেন।

তিনি তার বক্তব্য বলেন বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবদান, অকুতোভয় মুক্তিযোদ্ধাদের অর্জন, ৩০ লাখ শহীদ এবং দুই লাখ নারীর আত্মত্যাগ স্মরণ করা হয়।জীবিত সব মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়,

প্রধান অতিথি তিনি বর্তমান সরকারের গৃহীত অর্থনৈতিক ও সামাজিক কর্মসূচির বিশদ বর্ণনা দেন।
প্রবাসী বাংলাদেশিদের দলমত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধভাবে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নে কাজ করতে অনুরোধ জানান ।দেশের ভাবমূর্তি সমুন্নত রাখার লক্ষ্যে নিজ নিজ অবস্থান থেকে কাজ করার জন্য প্রবাসীদের প্রতি আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে নীল দরিয়া শিল্পগোষ্ঠী দেশাত্মবোধক গান পরিবেশন করে ।

পরিশেষে রাষ্ট্রদূত রিয়াল অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ নাজমুল হাসান ।কেক কেটে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস ২০২১ অনুষ্ঠানমালার সমাপ্তি ঘোষণা করেন ।

করোনাভাইরাস মহামারী এবং স্বাগতিক দেশ কতৃক আরোপিত কঠোর বিধিনিষেধের প্রেক্ষিতে উক্ত অনুষ্ঠানে সীমিত সংখ্যক অতিথিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন ।

অনুষ্ঠানটি প্রবাসী বাংলাদেশীদের উদ্দেশ্যে হাই কমিশনের ফেইসবুক পেইজে সরাসরি সম্প্রচার করা হয় ।

Facebook Comments