মার্চ ৪, ২০২১

Latest News Before Everyone in Bangladesh

জামালগঞ্জ প্রেসক্লাব আবারো বির্তকিত ভুয়া কমিটি

১ min read

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ প্রেসক্লাব আবারো অগঠনতান্ত্রিক ভাবে গঠিত ভুয়া কমিটি নিয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের মাঝে ও উপজেলা জুড়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সমালোচনার ঝড় বইছে। প্রেসক্লাবের বয়োজৈষ্ঠ সিনিয়র সাংবাদিকদের পাশ কাটিয়ে গঠনতন্ত্র পরিপন্থি ওলী উল্লাহ্ সরকার কে সভাপতি ও কমিউনিটি ক্লিনিকে কর্মরত (সিএইচপি) নিজাম নুর কে সাধারণ সম্পাদক করে একটি বির্তকিত কমিটি গঠন করায় উপজেলা জুড়ে তীব্র সমালোচনা ও প্রশ্নের মুখে পড়েছেন স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীবৃন্দ।

গত ২০১৯-’২০ ইং সালে অগঠনতান্ত্রিক ভাবে গঠিত জামালগঞ্জ প্রেসক্লাব কমিটিকে বিবৃতি দিয়ে ছিলেন প্রেসক্লাবের দুই মেয়াদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তৌহিদ চৌধুরী প্রদীপ, সাবেক দপ্তর সম্পাদক আবুল কালাম জাকারিয়া, সাবেক সিনিয়র সদস্য বাদলকৃষ্ণ দাস ও ওলি উল্লাহ্ সরকার এই চার জন। বৃবিতির পর প্রেসক্লাবের বির্তকিত ওই কমিটির সাধারণ সম্পাদক আকবর হোসেন এর দোকানে সকল গণমাধ্যমকর্মীকে নিয়ে চা চক্রের আয়োজনে নতুন কমিটি গঠনের আলোচনা হয়। এতে উপস্থিত সকলেই সম্মতি পোষণ করেন। এর কিছু দিন পরই সম্প্রতি হঠাৎ করে প্রেসক্লাব নীতিমালার বর্হিভুত কমিটি গঠন করায় হাস্য রসের সৃষ্টি হয়েছে।

গঠনতন্ত্রে নতুন সদস্য অর্ন্তভক্তির জন্য দুই বা তিন বছর দৈনিক পত্রিকার প্রতিনিধি হিসেবে কাজের অভিজ্ঞ থাকার কথা, এবং নতুন সদস্য হওয়ার পর সাধারণ সদস্য হয়ে দুই বছর থাকার কথা। কিন্তু নীতিমালা অনুসরণ না করেই পূর্বের ভুয়া কমিটির মতোই আবারো ভুয়া কমিটি গঠন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ২০০৭ ইং সালে প্রতিষ্টিত জামালগঞ্জ প্রেসক্লাবের প্রতিষ্টাতা সভাপতি আব্দুল আহাদ বলেন, অনেক কষ্ঠে প্রেসক্লাবটি গঠন করেছিলাম। বেশ কয়েক বছর পূর্বে আমি, অঞ্জন পুরকায়স্থ, নিজামনুর সহ ৮-১০ জনের স্বাক্ষার সহ রেজুলেশনের মাধ্যমে দিন তারিখ ঠিক করে জামালগঞ্জ প্রেসক্লাবের কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত হলেও, পদ লোভীদের কুমতলবের কারনে প্রেসক্লাব দুই ভাগে বিভাজন হয়। এর পর থেকেই দল ত্যাগী পদ লোভীদের কারণে বারবার প্রেসক্লাবটি বির্তকিত হচ্ছে। লজ্জায় দুরে সড়ে আছি। কিছুদিন পূর্বে আমরা গণমাধ্যমকর্মীরা আকবর হোসেনের দোকানে বসে সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে জামালগঞ্জ প্রেসক্লাব গঠনের সম্মতি হই। কিছু দিন যেতে না যেতেই ফের দল ত্যাগী ও পদবী লোভীরা মিলে প্রতিষ্টাকালীন সিনিয়র দায়ীত্বশীলদের পাশকাটিয়ে নীতিমালা বর্হিভুত সামাজে অচেনা নাম মাত্র সংবাদকর্মী বানিয়ে বির্তকিত কমিটি গঠন হওয়ায় সুশীল সমাজে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। দায়ীশীলদের কেউ প্রেসক্লাব সম্পর্কে জানতে চাইলে বিব্রতবোধ করি। যার কারনে আমি শান্তিপ্রিয় সংবাদকর্মীদের নিয়ে এলাকার উন্নয়নে কাজ করছি। দল ত্যাগী ও পদ লোভীদের ন্যাক্কার জনক কাজের নিন্দা ও তীব্রপ্রতিবাদ জানাই।

জামালগঞ্জ প্রেসক্লাবের দুই বারের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তৌহিদ চৌধুরী প্রদীপ বলেন, গত ক’দিন আগে শুনলাম জামালগঞ্জ প্রেসক্লাবের অগঠনতান্ত্রিক প্রকৃয়ায় আবারো একটি ভুয়া কমিটি হয়েছে। এই প্রেসক্লাবকে টিকিেিয় রাখতে অনেক শ্রম ঘাম ও আর্থিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি। সিলেট থেকে প্রেসক্লাবের কম্পিউটার এনেছি, টিভি, ষ্টীল আলমীরা, চেয়ার, টেবিল থেকে শুরু করে সব মালালামাল সংগ্রহ করেছিলাম আমরা কয়েয়েক জন।

গত দুই বছর পূর্বে অগঠনতাত্রিক ভাবে একটি ভুয়া কমিটি গঠন হলে আমি, বাদল কৃষ্ণ দাস, আবুলকালাম জাকারিয়া আর ওলী উল্লাহ্ সরকার মিলে প্রতিবাদ করি। পরে সবাই ঐক্য হওয়ার জন্য আকবর হোসেনের দোকানে আলোচনা করে সম্মত হই।

তিনি আরও বলেন এখন শুনলাম আমিসহ অনেককেই না জানিয়ে পদ লোভীদের নিয়ে অভিনভ পন্থায় একটি ভুয়া কমিটি গঠন হয়েছে। আমি তীব্র নিন্দা প্রতিবাদ ও ধিক্কার জানাই।

সাবেক সিনিয়র সদস্য বাদলকৃষ্ণ দাসের মোবাই ফোন বন্ধ পাওয়ায় তার বক্তব্য জানা যায়নি। তবে তিনি গত মেয়াদের জামালগঞ্জ প্রেসক্লাবের কমিটিকে ভুয়া কমিটি বলে আখ্যা দিয়ে প্রত্যাখ্যান করেছিলেন।

প্রেসক্লাব প্রতিষ্ঠাকালিন সদস্য নেহার দেবনাথ বলেন, আমরা প্রেসক্লাব গঠন করেছিলাম ভালো কিছু কাজের চিন্তা করে। এখন কয়েক জন পদলোভীদের কারনে স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীরা বির্তকিত হচ্ছেন। লজ্জায় এদের কাছ থেকে সরে আছি।

Facebook Comments