ঠকাবেন না প্রেমিকাদের, তাই একসঙ্গে দুজনকে বিয়ে যুবকের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : একসঙ্গে দুজনকে ভালোবেসে ফেলেন ভারতের ছত্তিশগড়ের ২৪ বছরের এক যুবক। ঠকাতে চাননি কাউকেই। শেষমেশ এক মণ্ডপেই দুই প্রেমিকার সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন তিনি। আর এ ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছে।

দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, একসঙ্গে দুই প্রেমিকাকে বিয়ে করা যুবক চন্দুর বাড়ি ছত্তিশগড়ের বস্তার জেলায়। দিনমজুর ও কৃষিকাজের সঙ্গে যুক্ত চন্দু একবার বস্তারের তোকপাল এলাকায় বৈদ্যুতিক খুঁটি লাগাতে যান চন্দু। সেখানে ২১ বছরের কাশ্যপের প্রেমে পড়েন। দুজন বিয়ে করবেন বলে সিদ্ধান্ত নেন।

কিন্তু বছর ঘুরতে না ঘুরতেই গ্রামের একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে হাসিনা বাঘেল (২০) নামে অন্য এক তরুণীর প্রেমে পড়েন চন্দু। সেই ভালোবাসাও অগ্রাহ্য করতে পারেন না। চন্দু জানান, তার প্রেমিকা রয়েছে জেনেও হাসিনা তার সঙ্গে সম্পর্কে জড়াতে চান। এরপর চন্দু তার দুই প্রেমিকার মধ্যে পরিচয় করিয়ে দেন। তিনজন একসঙ্গে চন্দুর বাড়িতে পরিবারের সঙ্গে থাকার সিদ্ধান্ত নেন।

সে মোতাবেক বিয়ের আয়োজন করা হয়। তবে বিয়ের অনুষ্ঠানে হাসিনার পরিবারের লোকজন উপস্থিত থাকলেও ছিলেন না কাশ্যপের পরিবারের কেউ। গত ৫ জানুয়ারি শাস্ত্রমতে বিয়ে হয় তিনজনের। প্রায় ৫০০ জন নিমন্ত্রিত অতিথি বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। বিয়ের ভিডিও ও তিনজনের নাম লেখা নিমন্ত্রণপত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

চন্দু জানান, দুজনই তাকে ভালবাসেন। তাই তিনি কাউকেই ঠকাতে পারবেন না। এ কারণে দুজনকেই একসঙ্গে বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। দুই স্ত্রী নিয়ে তার বিবাহিত জীবন আরো সুন্দর হবে বলেই আশা করছেন তিনি।

তবে এ ধরনের বিয়ে এবারই প্রথম নয়। এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশের বেতুলে। গত ৮ জুলাই সেখানকার এক যুবক একসঙ্গে বিয়ে করেন দুই মহিলাকে। দুই মহিলার মধ্যে একজন ছিলেন তার প্রেমিকা ও অন্যজন তার বাবা-মায়ের ঠিক করা পাত্রী। তিন পরিবারের সম্মতিতেই বিয়ে হয় তাদের।

Facebook Comments