কুঁড়েঘর ——– কামনা ইসলাম

কুঁড়েঘর
— কামনা ইসলাম
দেখেছি আমি বাগান বাড়ির
ছোট্ট কুঁড়ে ঘর,
যেঘরে ছিল সবাই আপন
ছিলনা কেউ পর।
হাসি ছিল খুশি ছিল
ছিল আকাশ, মিরা
দিনের বেলা একমুঠো ভাত
পাইনি খেতে তারা।
ক্ষুধার জ্বালায় আকাশ মিরা
ছিড়তো গাছের ফল
কলাই সিমের সাথে খেতো
একএক গ্লাস জল।
সকাল বেলা নুটো- সুটো
দুপুর বেলা রুটি
বিকেল বেলা ধরে কাটতো
মিয়া বাড়ি খুঁটি।
সাঁঝ এসেছে সূর্য ডোবে
মা বুঝি ঐ এলো
আকাশ মিরার হাসি দেখে
মাও হেসে দিলো।
ছোট্ট দুটো সোনা রেখে
কাজে যায় মা
সারা দিনে একবারও
তাদের দেখে না।
নাওয়া খাওয়া হয় কি তাদের
পেটে কি আছে ভাত
মা জননী হিসাব মেলায়
শুন্য তার হাত।
ভাগ্য বড় নির্দয় নিষ্ঠুর
বোঝা বড় দায়
পরের সন্তান কোলে নিয়ে
দিনটা কেটে যায়।
কুঁড়ে ঘরে তবুও সুখ
মা আছে পাশে
রাতের বেলা আকাশ মিরা
মায়ের সাথে হাসে।
সারা দিনে হয়না দেখা
লক্ষী মায়েের মুখ
মায়ের বুকে খোঁজে ওরা
সারা দিনের সুখ।

কবি পরিচিতি :

কামনা ইসলাম
লোহাগড়া, নড়াইল,
বাংলাদেশ।

Facebook Comments