আইপিএলে করা হবে ২০ হাজারেরও বেশি করোনা টেস্ট

স্পোর্টস ডেস্ক : আইপিএল শুরু হতে আর মাত্র ৯ দিন বাকি। ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে আরব আমিরাতের তিন মরু শহরে শুরু হবে ব্যাট-বলের ধুমধাড়াক্কা লড়াই। প্রায় ৫৩ দিনের এই টুর্নামেন্ট চলাকালীন আয়োজক কর্তৃপক্ষ করোনাভাইরাসের বিষয়ে বেশ সতর্ক।

এমনিতেই আইপিএল আয়োজনের জন্য বায়ো-বাবল পরিবেশ তৈরি করা হয়েছে। খেলা অনুষ্ঠিত হবে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে। তার ওপর সম্পূর্ণ আইপিএল আয়োজন করতে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড এসওপি (স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর) তৈরি করে দিয়েছে।

করোনাভাইরাসের রাহুগ্রাস থেকে মুক্ত থাকতে আরও কিছু পদক্ষেপ নিচ্ছে আয়োজক কর্তৃপক্ষ ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। পুরো টুর্নামেন্ট চলাকালে ২০ হাজারেরও বেশি করোনা টেস্ট করা হবে বলে জানানো হয়েছে আইপিএলের মেডিকেল পার্টনারের পক্ষ থেকে।

আইপিএলে খেলার জন্য আট দলের প্রায় ২০০ ক্রিকেটার এরই মধ্যে আরব আমিরাতে পৌঁছেছেন এবং ছয় দিনের কোয়ারেন্টাইন পালন করে ফেলেছেন। এই ছয়দিনের মধ্যে তিনবার করোনা টেস্ট করা হয়েছে তাদের। আসার পরপরই একবার, দুদিন পর আরও একবার এবং সর্বশেষ তিনদিন পর আরও একবার টেস্ট করা হয়েছে।

একই নিয়ম প্রযোজ্য হচ্ছে দলগুলোর কোচ এবং সাপোর্ট স্টাফ, ম্যাচ আম্পায়ার, কর্মকর্তা, আয়োজক, ব্রডকাস্টার, বিসিসিআই কর্মকর্তাসহ সবার জন্য। সব মিলিয়ে সংখ্যাটা হবে কয়েকশ।

আইপিএলের অফিসিয়াল মেডিকেল পার্টনার ভিপিএস হেলথ কেয়ার সেন্টার বুধবার জানিয়েছে, এরই মধ্যে সাড়ে তিন হাজার করোনা টেস্ট সম্পন্ন হয়েছে। এক মুখপাত্র এএফপিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘পুরো টুর্নামেন্ট চলাকালে ২০ হাজারেরও বেশি করোনা টেস্ট করা হবে। খেলোয়াড় এবং কর্মকর্তাদের চলাচল হোটেল এবং স্টেডিয়ামের বাইরে পুরোপুরি নিষিদ্ধ করা হয়েছে।’

কঠোর নিয়ামাবলির মধ্যে থাকার পরও কিছুদিন আগে চেন্নাই সুপার কিংসে করোনা থাবা বসিয়ে দেয়। দুই ক্রিকেটারসহ মোট ১৩ জনের করোনা রিপোর্ট আসে পজিটিভ। এরপর আবার করোনা হানা দেয় দিল্লি ক্যাপিটালসেও। এছাড়া করোনার কারণে আইপিএল থেকে নাম সরিয়ে নেন চেন্নাই সুপার কিংসের সুরেশ রায়না, হরভজন সিং। ব্যক্তিগত কারণে যোগ দিচ্ছেন না শ্রীলঙ্কার লাসিথ মালিঙ্গা এবং অস্ট্রেলিয়ার কেনে রিচার্ডসন।

১৯ সেপ্টেম্বর উদ্বোধনী ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রোহিত শর্মার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স মুখোমুখি হবে মহেন্দ্র সিং ধোনির চেন্নাই সুপার কিংস।

Facebook Comments