আমিরাত-ইসরায়েলি বিমানকে আকাশপথ ব্যবহারের অনুমতি বাহরাইনের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : এবার আরব আমিরাত ও ইসরায়েলের মধ্যে বিমান চলাচলে নিজেদের আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ বাহরাইন।

এক বিবৃতিতে বাহরাইনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, আরব আমিরাত ও ইসরায়েলের মধ্যে সব বিমানের ফ্লাইট তাদের আকাশপথ ব্যবহার করে যাওয়া-আসা করতে পারবে।

দেশটির বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আরব আমিরাতের অনুরোধে বৃহস্পতিবার থেকে নিজেদের আকাশপথে আমিরাত ও বাহরাইনের বিমান চলাচলে অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

বাহরাইনের পরিবহন ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তাদের আকাশপথ দিয়ে আরব আমিরাত থেকে সব দেশে বিমানের ফ্লাইট চলাচল করতে পারবে।

এর আগে ইসরায়েলের বিমানকে নিজেদের আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরব। ইসরায়েল ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যে গত সোমবার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিমান চলাচল শুরু হয়েছে। সৌদি আরব ইসরায়েলকে তাদের আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জামাতা ও জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা জ্যারেড কুশনার দু’দিনের সফরে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে সৌদি আরবে পৌঁছে দেশটির ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে বৈঠক করেন।

ওই বৈঠকের পর সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ইসরায়েলে বিমান চলাচলে নিজেদের আকাশপথ ব্যবহারের অনুমতি দেয় সৌদি। গত ১৩ আগস্ট ইসরায়েলের সঙ্গে পূর্ণাঙ্গ সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দেয় আরব আমিরাত। এরপরই বিমান চলাচলও শুরু হয়।

প্রথম ফ্লাইটে যাত্রী হিসেবে ছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জামাতা ও উপদেষ্টা জেয়ার্ড কুশনার। এছাড়া তার সঙ্গে ছিলেন ইসরায়েলের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মিইর বেন শাবাত ও মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা রবার্ট ও’ব্রায়ান।

Facebook Comments