সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে এবার মুখ খুললেন তাপসী

বিনোদন ডেস্ক : বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু নিয়ে হৈচৈ চলছে। নিজ বাসায় ঝুলন্ত অবস্থায় আত্মহত্যা করেন সুশান্ত এমন খবর শোনা যায় প্রথম থেকেই। তবে অভিনেতার পরিবার এটিকে পরিকল্পিত খুন বলেই মনে করছে।

পরিবারের সদস্যদের কথায় সুশান্তের ভক্তরাও সুশান্তের মৃত্যুকে খুন হিসেবে দেখছে। তারা এর সঠিক তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের শাস্তি দাবি করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সোচ্চার হয়েছেন। সেই সঙ্গে তারা উগ্র আচরণও প্রকাশ করছেন তাদের বিরুদ্ধে যারা সুশান্তের মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলেই ভাবেন। কিংবা যেসব তারকা সুশান্তের মৃত্যুকে খুন দাবি করে কোনো কথা বলছেন না তাদেরও নানা ভাষায় আক্রমণ করে যাচ্ছেন। তারকারাও এ বিষয়ে ভালো মন্দ কোনো কিছুই বলছিলেন না এতদিন।

কিন্তু গত মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) সিবিআইয়ের তিন অফিসার দাবি করেছেন, এখন পর্যন্ত সুশান্তের মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলেই মনে হচ্ছে। কারো বিরুদ্ধেই সুশান্তকে খুনের প্রমাণ বা তথ্য পাওয়া যায়নি। এরপর থেকে ভারতের অনেক তারকাই রিয়া চক্রবর্তী ও তার পরিবারের ওপর প্রমাণহীণ খুনের অভিযোগে চলমান মানসিক অত্যাচারের প্রতিবাদ জানান। তারা নিজেদের মত দিয়ে একটি মৃত্যুর মামলাকে হাস্যকর না করে দেশের আইনের ওপর আস্থাশীল থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন।

সে তালিকায় এবার যোগ দিলেন বলিউড অভিনেত্রী তাপসী পান্নু। এক টুইট বার্তায় এই অভিনেত্রী লিখেছেন, ‘আমি সুশান্ত সিং রাজপুতকে ব্যক্তিগতভাবে চিনি না। রিয়া চক্রবর্তীকেও না। মনে করি তারা উভয়েই আমার সহকর্মী। আমি নিজের নৈতিক জায়গা থেকে আর চুপ থাকতে পারলাম না। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যার অ্যাকাউন্ট আছে, সেই একজন বিচারক বনে গেছে। ইচ্ছেমতো নিজের রায় জানিয়ে দিচ্ছে তারা। যাকে তাকে অভিযুক্ত করছে। আপনারা বরং দেশের বিচারব্যবস্থার ওপর আস্থা রাখুন। যার কাজ তাকে করতে দিন।’

ওই পোস্টে তাপসী আরও লেখেন, ‘এ বিষয়ে কথা বলার আগে আমি অনেক ভেবেছি। ভেবে মনে হলো, একজন অভিনয়শিল্পীর মৃত্যুতে আরেক অভিনয়শিল্পীকে নিয়ে যা চলছে, তা নিয়ে যদি এখনো কথা না বলি, তাহলে অভিনয়শিল্পী হিসেবে নিজের কাছে দায়ী থেকে যাব। এখনো কিছুই প্রমাণিত নয়। অথচ একজন নারীকে রীতিমতো দানব বানিয়ে ছেড়েছে মিডিয়া।

বাস্তবতা হলো সেই নারী ও তার পরিবারের ওপর কী যাচ্ছে আমরা কল্পনাও করতে পারি না। এসব নোংরামি বন্ধ করুন। আইনকে নিজের গতিতে কাজ করতে দিন। সত্যকে সততার সঙ্গে বেরিয়ে আসতে দিন।’

Facebook Comments