রাজস্ব বাড়াতে ডিএনসিসির বিশেষ অভিযান শুরু আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক : আর্থিক স্বনির্ভরতা অর্জন করে নাগরিক সেবা ও উন্নয়ন কর্মকাণ্ড জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছানোর লক্ষ্যে করের হার না বাড়িয়ে পরিধি (ট্যাক্স নেট) বাড়ানোর পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)।

এ উপলক্ষে আজ (মঙ্গলবার) থেকে বিশেষ অভিযান (চিরুনি অভিযান) পরিচালনা করবে সংস্থাটি। রাজধানীর মোহম্মাদপুর এলাকা থেকে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম।
অভিযানের বিষয়ে সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা এ এস এম মামুন বলেন, এই অভিযানের মূল লক্ষ্য হচ্ছে করের পরিধি বাড়ানো। সেই সঙ্গে বাদপড়া হোল্ডিং বা প্রতিষ্ঠানকে করের আওতাভুক্ত করা। রাজস্ব বিভাগের কার্যক্রমে ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের সম্পৃক্ততা বৃদ্ধি করা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত করা এবং জনসাধারণকে পৌরকর প্রদানে উৎসাহ প্রদান করা।

তিনি জানান, চিরুনি অভিযানে করবহির্ভূত বাড়িঘর-স্থাপনা এবং নতুন সৃষ্ট ফ্ল্যাট, বাড়িঘর-স্থাপনা করের আওতায় আনা হবে। এছাড়া ট্রেড লাইসেন্সবিহীন বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান চিহ্নিত করা ও আইনসম্মতভাবে ট্রেড লাইসেন্সের আওতায় আনা হবে এবং মেয়াদোত্তীর্ণ ট্রেড লাইসেন্স দ্বারা পরিচালিত বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান চিহ্নিত করা ও নবায়নের আওতায় আনা হবে।

সিটি করপোরেশনের সংশ্লিষ্ট বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, অভিযান সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে প্রতিটি ওয়ার্ডে ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে আহ্বায়ক এবং সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলরকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে ছয় সদস্যবিশিষ্ট কমিটি করা হয়েছে। একজন উপকর কর্মকর্তা কমিটির সদস্য সচিবের দায়িত্ব পালন করবেন। এই কমিটি করবহির্ভূত বাড়িঘর এবং ট্রেড লাইসেন্সবিহীন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান চিহ্নিত করবে। আজ থেকে ডিএনসিসির অঞ্চল-২ (মিরপুর) এবং অঞ্চল-৫ (কারওয়ান বাজার) এর সকল ওয়ার্ডে মাসব্যাপী চিরুনি অভিযান শুরু হবে। ডিএনসিসির অন্যান্য অঞ্চলেও পরবর্তীতে এই চিরুনি অভিযান পরিচালিত হবে।

এদিকে গত ২৭ আগস্ট ডিএনসিসির নগরভবনে অনুষ্ঠিত ‘চিরুনি অভিযান সফল করার লক্ষ্যে কর্মকৌশল’ সংক্রান্ত এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে সকল নির্দেশনা এবং কর্মকৌশলের পাশাপাশি মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, রাজস্ব আদায় বৃদ্ধি করে ডিএনসিসিকে নিজের পায়ে দাঁড়াতে হবে। চিরুনি অভিযানের লক্ষ্য হচ্ছে জনগণের ট্যাক্স না বাড়িয়ে, যারা ট্যাক্সের আওতার বাইরে আছে তাদের ট্যাক্সের আওতায় আনা। মোট রাজস্ব বৃদ্ধি পেলে নাগরিক সেবার মানও আরও উন্নত করা যাবে।

Facebook Comments