যুক্তরাষ্ট্রের টিকটক ‘চুরি’ মানবে না চীন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ‘‘কোনও প্রযুক্তি কোম্পানির ‘চুরি’ হয়ে যাওয়া মেনে নেবে না চীন এবং সংক্ষিপ্ত ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপ টিকটকের মার্কিন কার্যক্রম মাইক্রোসফটের কাছে বিক্রি করে দিতে বাইটড্যান্সের ওপর ওয়াশিংটন যে চাপ দিচ্ছে বেইজিং তার জবাব দিতে সক্ষম।’’ মঙ্গলবার চীনের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন পত্রিকা চায়না ডেইলির এক সম্পাদকীয়তে এই হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, ওয়াশিংটনের অন্তঃসারশূন্য ‘আমেরিকা প্রথম’ দর্শনের পরিণতিতে চীনা প্রযুক্তি কোম্পানিগুলোকে ভয় দেখাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র এবং প্রযুক্তির রাজ্যে নতি শিকার অথবা মারণ লড়াই ছাড়া চীনের আর কোনও পথ খোলা নেই।

চায়না ডেইলির সম্পাদকীয়তে বলা হয়েছে, মার্কিন প্রশাসন যদি তাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়ে যায় এবং দখল করে নেয়, তাহলে এর জবাব দেয়ার অনেক উপায় আছে চীনের।

জাতীয় নিরাপত্তা বিবেচনায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প টিকটক নিষিদ্ধের পরিকল্পনা বাতিল করে একটি চুক্তিতে পৌঁছানোর জন্য প্রতিষ্ঠানটিকে ৪৫ দিনের সময় বেঁধে দেন। এরপর সোমবার মাইক্রোসফট করপোরেশন জানায়, তারা টিকটকের অংশ কিনতে বাইটড্যান্সের সঙ্গে আলোচনা করছে।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও গত কয়েকদিন ধরে বলেছেন, চীন সরকারকে ব্যবহারকারীদের তথ্য দেয়া চীনা সফটওয়্যার কোম্পানিগুলোর বিরুদ্ধে দ্রুতই ব্যবস্থা নেবেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

চীন সরকার সমর্থিত আরেকটি সংবাদপত্র গ্লোবাল টাইমস বলছে, বর্তমানে মার্কিন বাণিজ্যে কালো তালিকাভুক্ত বাইটড্যান্স এবং হুয়াওয়ে টেকনোলজিসের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র যে আচরণ করছে তাতে নিজেদের অর্থনীতিকে চীন থেকে আলাদা করার প্রচেষ্টার ইঙ্গিত রয়েছে।

পত্রিকাটি বলছে, মার্কিন কোম্পানিগুলোর বিরুদ্ধে প্রতিশোধমূলক ব্যবস্থা নেয়ার মাধ্যমে চীনা কোম্পানিগুলোকে রক্ষায় চীনের ‘সীমিত ক্ষমতা’ রয়েছে। কারণ যুক্তরাষ্ট্রের প্রযুক্তির শ্রেষ্ঠত্ব এবং মিত্রদের ওপর প্রভাব রয়েছে।

সূত্র: রয়টার্স।

Facebook Comments