নামাজের নিয়ত বেঁধে যে দোয়া পড়তেন বিশ্বনবি

ধর্ম ডেস্ক : তাকবিরে তাহরিমা ‘আল্লাহু আকবার’ বলে নামাজের নিয়ত বাঁধা ফরজ। তাকবিরে তাহরিমার পর কেরাত পড়ার আগে কিছু সময় নিরব থাকতেন বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম। এ সময় তিনি দোয়া পড়তেন। সাহাবায়ে কেরামের জিজ্ঞাসাবাদে প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম জানান-

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাকবিরে তাহরিমা ও কেরাত পাঠের মধ্যবর্তী সময়ে কিছুক্ষণ নীরব থাকতেন। একদিন আমি (আবু হুরায়রা) বললাম, হে আল্লাহর রাসুল! আমার বাবা ও মা আপনার জন্য কুরবানি হোক। আপনি তাকবিরে তাহরিমা ও কেরাত শুরুর মাঝে নীরব থাকেন, এ সময় কী পড়েন?

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, আমি বলি-

اللَّهُمَّ بَاعِدْ بَيْنِي وَبَيْنَ خَطَايَايَ كَمَا بَاعَدْتَ بَيْنَ الْمَشْرِقِ وَالْمَغْرِبِ، اللَّهُمَّ نَقِّنِي مِنْ خَطَايَايَ كَمَا يُنَقَّى الثَّوْبُ الأَبْيَضُ مِنْ الدَّنَسِ، اللَّهُمَّ اغْسِلْنِي مِنْ خَطَايَايَ بِالْمَاءِ وَالثَّلْجِ وَالْبَرَدِ

উচ্চারণ : আল্লাহুম্মা বায়িদ বাইনি ওয়া বাইনা খাত্বাইয়াইয়া কামা বাআত্তা বাইনাল মাশরিক্বি ওয়াল মাগরিব। আল্লাহুম্মা নাক্কিনি মিন খাত্বাইয়ায়া কামা ইয়ুনাক্কাছ ছাওবুল আব্ইয়াদু মিনাদ দানাসি। আল্লাহুম্মাগসিলনি মিন খাত্বাইয়াইয়া বিল-মায়ি ওয়াছ ছালঝি ওয়াল বারাদি।’

অর্থ : ‘হে আল্লাহ! তুমি আমার ও আমার পাপ সমূহের মধ্যে দূরত্ব সৃষ্টি করে দাও, যেভাবে তুমি দূরত্ব সৃষ্টি করেছ পূর্ব ও পশ্চিমের মধ্যে। হে আল্লাহ! তুমি আমাকে আমার পাপসমূহ থেকে পরিচ্ছন্ন কর, যেভাবে পরিচ্ছন্ন করা হয় ময়লা থেকে সাদা কাপড়কে। হে আল্লাহ! তুমি আমার পাপসমূহ ধুয়ে ফেল পানি, বরফ ও শিশির দ্বারা।’ (বুখারি, মুসলিম ও মিশকাত)

নামাজের যেসব স্থানে দোয়া করা যায়, এরমধ্যে তাকবিরে তাহরিমার পর কেরাত শুরু করার আগে। এ দোয়া মহান আল্লাহ তাআলা কবুল করেন। প্রিয় নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উম্মতের মুহাম্মাদির জন্য শিক্ষণীয় হিসেবে হাদিসে পাকে বাস্তব আমলস্বরূপ তুলে ধরেছেন।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে নামাজের তাকবিরে তাহরিমার পর কেরাত পড়া শুরু করার আগে এ দোয়া পড়ার মাধ্যমে নিজেদের গোনাহমুক্ত হওয়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।

Facebook Comments