বাঘারপাড়ায় তুচ্ছ ঘটনায় ছুরিকাঘাতে চালক খুন

এস এম মারুফ, ক্রাইম রিপোর্টার যশোর : যশোরের বাঘারপাড়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক পর্যায়ে ছুরিকাঘাতে রিপন হোসেন (৩০) নামে এক প্রাইভেটকার চালক খুন হয়েছেন। পুলিশ অভিযুক্ত বরকত নামে একজনকে আটক করেছে।

আটককৃত বরকত এর বাড়ি- বাড়ি যশোর শহরের বারান্দিপাড়ায়। এবং সে শহরের ১নং ওয়ার্ড যুবলীগের আহ্বায়ক এবং শীর্ষ সন্ত্রাসী ফিঙে লিটনের ক্যাডার। তার নামে হত্যাসহ যশোর কোতয়ালী থানায় ১০টির অধিক মামলা রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রোববার (২৮ জুন) দুপুর ১টার দিকে বাঘারপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে প্রাইভেটকারচালক রিপন, বরকত নামে এক যুবক ও তার স্ত্রী সাথে গাড়ি ভাড়া নিয়ে কথা চলছিল। ওই সময় ভাড়া নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে বরকত তার কাছে থাকা ছুরি দিয়ে রিপনের বুকের বাম পাশে আঘাত করে। ঠেকাতে যেয়ে সেখানকার ওষুধ ব্যবসায়ী হিরুও ছুরিকাহত হন। প্রথমে আহত দু’জনকে বাঘারপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে বেলা ২টার দিকে গুরুতর অবস্থায় রিপনকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে আনা হলে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন।

জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডাক্তার এনাম উদ্দিন জানান, ওই যুবককে হাসপাতালের আনার আগেই তিনি মারা যান।

আহত ওষুধ ব্যবসায়ী হিরু আহমেদ বলেন, ‘আমার ফার্মেসির সামান্য দূরে একটি মোটরসাইকেলে বরকত ও ভ্যানে একটি মেয়ে বসে কথা বলছিল। পরে দেখি, স্ট্যান্ডের ড্রাইভার হাসিবুল ও বরকত কী নিয়ে যেন আলাপ করছে। হঠাৎ তাকে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি মারতে শুরু করে বরকত। বিষয়টি স্ট্যান্ডের অন্য ড্রাইভারদের নজরে আসলে, রিপন সহ কয়েকজন ড্রাইভারও এগিয়ে যায়, এবং কি কারণে হাসিবুলকে মারধর করছে জানতে চাইলে এতে বরকত ক্ষিপ্ত হয়ে কাছে থাকা ছুরি বের করে। সেই সময় আমিও দোকান থেকে বের হয়ে তাদের ঠেকাতে যায়। ভীড়ের মধ্যে বরকত আমার বাম হাতে ছুরিকাঘাত করে, পাশে ফিরে দেখি রক্তাত্ব অবস্থায় কাতরাচ্ছে রিপন।এসময় অন্যান্য ড্রাইভারা উত্তেজিত হয়ে বরকতকে বেদম মারপিট করে। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে বরকতসহ স্থানীয় দু’যুবককে ধরে নিয়ে যায়।

এদিকে, রিপনের মৃত্যুর সংবাদ এলাকায় পৌঁছুলে স্থানীয় লোকজন রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকে। স্থানীয়রা রিপনের খুনির শাস্তি ও নিরীহ দু’যুবককে ছেড়ে দেওয়ার দাবিও জানায়।

বাঘারপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আল মামুন বলেন, কী কারণে রিপনকে ছুরিকাঘাত করা হয়-তা এখনও জানা যায়নি। তবে, ঘটনার সঙ্গে জড়িত যুবক বরকতকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হবে। ঘাতক বরকত যশোর শহরের মোল্যাপাড়া এলাকার বাসিন্দা। তার নামে কোতোয়ালি থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। নিহত রিপন যশোরের বাঘারপাড়া পৌরসভার মহিরন এলাকার মনিরুল ইসলামের ছেলে।

অভিযোগ রয়েছে বরকত উল্লাহ খান মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। যশোর শহরের মনিহার এলাকায় শীর্ষ সন্ত্রাসী ফিঙ্গে লিটন ও তার ভাই ডিম রিপনের নাম ভাঙ্গিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com