এসক্যাপ অধিবেশনে সভাপতি বাংলাদেশ, প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও বাণী

নিউজ ডেস্ক : এবার করোনা মহামারির কারণে ইতিহাসে প্রথমবারের মতো জাতিসংঘের এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের অর্থনৈতিক ও সামাজিক কমিশনের (এসক্যাপ) ৭৬তম বার্ষিক অধিবেশন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

অধিবেশনে থাইল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. নাজমুল কাওনাইন সভাপতি হয়েছেন। এতে সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয় থাইল্যান্ড।

এবার কমিশন অধিবেশনের মূল উপজীব্য ছিল ‌‌‘টেকসই উন্নয়নের জন্য সামুদ্রিক ক্ষেত্রে অর্থনৈতিক, সামাজিক ও পরিবেশগত সহযোগিতার উন্নয়ন’।

ব্যাংককে এই কমিশন অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অংশগ্রহণের কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত উদ্ভূত পরিস্থিতির কারণে এ অধিবেশন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আয়োজনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

প্রধানমন্ত্রী একটি ভিডিও বাণীর মাধ্যমে উদ্বোধনী অধিবেশনে যোগদান করেন। তার বার্তায় তিনি সামুদ্রিক সম্পদের টেকসই ব্যবহারের জন্য উন্নয়নশীল দেশগুলোর সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য আঞ্চলিক সহযোগিতার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। এছাড়াও থাইল্যান্ড, ফিজি ও টুভ্যালুর প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন অধিবেশনে ভিডিওবার্তা প্রদান করেন।

থাইল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. নাজমুল কাওনাইন অধিবেশনে সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় এসক্যাপের ৫৩টি সদস্য রাষ্ট্রের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আঞ্চলিক সহযোগিতা সংহত করার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের দৃঢ় অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

এসক্যাপের এই বার্ষিক অধিবেশনে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (মেরিটাইমবিষয়ক) মো. খোরশেদ আলম সাত সদস্যবিশিষ্ট বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের প্রধান হিসেবে কান্ট্রি স্টেটমেন্ট প্রদান করেন এবং তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদল বিভিন্ন এজেন্ডায় বাংলাদেশের অবস্থান তুলে ধরেন।