বাতিলই করে দেয়া হলো প্রিমিয়ার ফুটবল লিগ

বিশেষ সংবাদদাতা : করোনাভাইরাসের কারণে নানা জ্বল্পনা-কল্পনার পর শেষ পর্যন্ত বাতিলেই করে দেয়া হলো বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগ। একই সঙ্গে বাতিল করা হলো বাংলাদেশের ঘরোয়া ফুটবলের ২০১৯-২০২০ মৌসুমের বাকি অংশও। আজ দুপুরের পর বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

প্রিমিয়ার ফুটবল লিগ বাতিল ঘোষণার কারণে কেউ আর চ্যাম্পিয়ন হলো না লিগে। কেউ রানারআপও হলো না। শুধু চ্যাম্পিয়নশিপই নয়, কারও অবনমনও ঘটলো না এবার আর। আগের অবস্থাতেই রয়ে যাবে।

প্রিমিয়ার ফুটবল লিগের ভাগ্য নিয়ে গত বেশ কিছুদিন ধরেই আলোচনা চলছিল। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ক্লাবগুলোর কাছে চিঠি দিয়েছিল তাদের মতামত জানানোর জন্য। ক্লাবগুলোর অধিকাংশই বল ঠেলে দিয়েছিল বাফুফের কোর্টে। ক্লাবগুলোর বক্তব্য, যা সিদ্ধান্ত নেয়ার বাফুফেই নিক।

এরই মধ্যে এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের (এএফসি) গাইডলাইনের অপেক্ষায় ছিল বাফুফে। অবশেষে সেটাও তারা পেয়ে গিয়েছিল শনিবার। সে আলোকেই আজ জরুরি সভা ডেকে এবারের মৌসুম বাতিল ঘোষণা করে বাফুফে।

মৌসুম বাতিল ঘোষণা করায় স্বাধীনতা কাপ ও পেশাদার ক্লাবগুলোর অনুর্ধ্ব-১৮ টুর্নামেন্ট- এ দুটোও বাতিল হযে গেলো। স্বাভাবিকভাবে মৌসুম হওয়ার কথা ছিল আগামী অক্টোবরে। ফলে শুধুমাত্র ফেডারেশন কাপ দিয়েই শেষ হয়ে গেলো ২০১৯-২০ ঘরোয়া ফুটবল মৌসুম।

প্রিমিয়ার লিগ বাতিল করার কারণে ২০২১ সালে এএফসি কাপে বাংলাদেশ থেকে অংশগ্রহণকারীর দলের সংখ্যা কমে যাওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। সাধারণত ২টি দল অংশ গ্রহণ করার কথা ছিল এএফসি কাপে। কিন্তু লিগ বাতিল হওয়ার কারণে একটি দলের অংশগ্রহণ অনিশ্চিত হয়ে গেলো। যদিও এ বিষয়ে এএফসি থেকে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি।