মহামারি থেকে মুক্তির দোয়া

ধর্ম ডেস্ক : গোনাহের কারণে মানুষের ওপর বিভিন্ন ধরনের বিপর্যয় মহামারি নেমে আসে। প্রাণঘাতী বৈশ্বিক মহামারি করোনা-ঝড়-জলোচ্ছ্বাস- এসবই আল্লাহর পক্ষ থেকে বান্দার জন্য আজাব বা শাস্তি। আল্লাহ তাআলা বলেন-
‘স্থলে ও জলে মানুষের কৃতকর্মের দরুন বিপর্যয় ছড়িয়ে পড়ে। আল্লাহ তাদেরকে তাদের কর্মের শাস্তি আস্বাদন করাতে চান, যাতে তারা (তার দিকেই) ফিরে আসে।’ (সুরা রূম : আয়াত ৪১)

আল্লাহ তাআলা মানুষকে তার সব বিপর্যয়-মহামারি থেকে মুক্তির জন্য কুরআনুল কারিমে ছোট্ট একটি দোয়া উল্লেখ করেছেন। আর তাহলো-
رَبَّنَا اكْشِفْ عَنَّا الْعَذَابَ إِنَّا مُؤْمِنُونَ
উচ্চারণ : ‘রাব্বানাকশিফ আন্নাল আজাবা ইন্না মুমিনুন।’
অর্থ : ‘হে আমাদের পালনকর্তা! আমাদের উপর থেকে আপনার শাস্তি প্রত্যাহার করুন, আমরা বিশ্বাস স্থাপন করছি।’ (সুরা দুখান : আয়াত ১২)

কুরআনুল কারিমে উল্লেখিত আজাব থেকে ক্ষমা প্রার্থনার মাধ্যমে মহামারি করোনাসহ যে কোনো বিপর্যয় ও ক্ষতি থেকে তিনি তার বান্দাকে রক্ষা করবেন। অন্য আয়াতে এ কথার সমর্থনে মানুষকে উৎসাহ ও সতর্ক করে আল্লাহ তাআলা ঘোষণা করেন-
‘আল্লাহ তাআলা কখনো তাদের ওপর আজাব দেবেন না যতক্ষণ তারা ক্ষমা প্রার্থনা করতে থাকবে।’ (সুরা আনফাল : আয়াত ৩৩)

সুতরাং দুনিয়ার যাবতীয় বিপর্যয়-মহামারি থেকে মুক্ত থাকতে বেশি বেশি ক্ষমা প্রার্থনার বিকল্প নেই। দুনিয়ার জল, স্থল, আকাশ, ফল-ফসলসহ মানুষের জীবনে ছড়িয়ে পড়া দুর্যোগ ও মহামারি থেকে মুক্ত থাকতে ছোট্ট কুরআনি দোয়াটি পড়া জরুরি।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে তারই শেখানো দোয়ায় মহামারি করোনাসহ যাবতীয় বিপর্যয় ও দুর্যোগ থেকে মুক্ত থাকার তাওফিক দান করুন। আমিন।

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com