ঘরে বসেই বিয়ের সাজ রীতিকার সাথে

শায়লা আর আদনানের বিয়ে হবার কথা ছিল মার্চের ২৭ তারিখে। এদিকে দেশ জুড়ে লক ডাউনের কবলে পড়ে সেই বিয়ে পিছিয়ে ৭ বছর চুটিয়ে প্রেম করা মানিকজোড়ের মন ভেঙে যায় যায় অবস্থা। বয়সটাও বেড়ে যাচ্ছে হু হু করে। সবশেষে তারা সিদ্ধান্ত নিল, কোন অনুষ্ঠান ছাড়াই বিয়েটা সেরে ফেলবে। যেই ভাবা সেই কাজ, শুরু হল ঘরে বসেই বিয়ের আয়োজন। শপিং তো আগেই করা ছিল। বিপত্তি বাধলো বৌএর সাজ নিয়ে। শায়লা’র খুব পরিচিত একজন বড় আপু আছে, নাম রীতিকা, বিবিএ সেকেন্ড ইয়ারে পড়ে; ব্রাইডাল সাজানোর জন্যে শহরে তার নাম-ডাক আছে বেশ। কিন্তু কিভাবে যাবে তার স্টুডিওতে! শেষ মেষ অডিও আর ভিডিও কলেই রীতিকার কার্যকরী টিপসে শায়লা’র মেকআপটা সম্পন্ন হল।

পরিস্থিতির বিবেচনায় এভাবে অনেককেই ঘরে বসে বিয়ের সাজ নিতে হচ্ছে, আর তাদের জন্যে আগে ভাগেই কার্যকরী কিছু সমাধান নিয়ে হাজির হয়েছেন ব্রাইডাল বিশেষজ্ঞ রাজনন্দিনী রীতিকা-

বেস মেকআপ টিপস:

  • ময়শ্চারাইজার: ব্রাইডাল মেকআপ শুরু করার আগে আপনাকে আগে কিছু বেসিক কাজ করতে হবে যেমন মেকআপ করার আগে মুখে পরিষ্কার করতে হবে এবং মুখ ময়শ্চারাইজ করে রাখতে হবে। তারপর ভালো দেখে নিজের ত্বকের সঙ্গে মিলিয়ে ময়শ্চারাইজ করে নিন। মাথায় এমন ময়শ্চারাইজার বেছে নেবেন যা দীর্ঘ সময় ধরে আপনার ত্বক হাইড্রেট করে রাখে।
  • মুখে প্রাইমার লাগান: একটি ভালো প্রাইমার ব্যবহার করুন ফাউন্ডেশন লাগানোর আগে। কারণ এটি আপনার মেকআপ দীর্ঘক্ষণ ধরে রাখবে। তাই ভুলে ব্রাইডাল মেকআপ করার সময় ভূলেও প্রাইমার ছাড়া মেকআপ করা চলবে না।
  • চোখের জন্য প্রাইমার ব্যবহার করুন: ব্রাইডাল মেকআপের জন্য আপনাকে আইলিড প্রাইমার কিনতে হবে। মুখের মতো চোখের পাপড়ির মেকআপ দীর্ঘক্ষণ বজায় লাগতে চোখের মেকআপ করার আগে আইলিড প্রাইমার ব্যবহার করুন।

মুখের জন্য ব্রাইডাল মেকআপঃ

  • সঠিক ফাউন্ডেশন শেড: ব্রাইডাল ফেস মেকআপ টিপস ফাউন্ডেশন শেড দিয়ে শুরু হয়। আপনার বিয়ের আগে আপনার সঠিক ফাউন্ডেশনেটি খুঁজে বের করা উচিত। আপনি যদি আপনার ত্বকের কালারের থেকে অনেক হালকা ফাউন্ডেশন শেড বেছে নেন তবে আপনার বিয়ের ছবিগুলি বাজে আসবে। অন্যদিকে, আপনি যদি আপনার ত্বকের রঙের চেয়ে ডার্ক শেড নেন তালে মেকআপ নষ্ট হয়ে যাবে। তাই আপনাকে আপনার স্কিন শেডের সঙ্গে মিক্স এবং ম্যাচ করে ফাউন্ডেশন বেছে নিতে হবে।
  • ফাউন্ডেশনের জন্য মেকআপ স্পঞ্জ ব্যবহার করুন: ব্রাইডাল মেকআপ করার সময় ফাউন্ডেশন ব্লেন্ড করার জন্য ভালো স্পঞ্জ ব্যবহার করা উচিত। যতভালোভাবে ব্লেন্ড হবে মেকআপ দীর্ঘক্ষণ লং লাস্টিং করবে।
  • পরিষ্কার ব্রাশ ব্যবহার করুন: আপনার বিবাহের মেকআপের জন্য পুরানো ব্রাশ ব্যবহার করবেন না। নতুন ব্রাশগুলি ব্যবহার করুন যা ভাল মানের এবং ব্র্যান্ডের।
  • ভালো কনসিলার বেছে নিন: আপনার ব্রাইডাল মেকআপের জন্য আপনাকে সেই দিনের জন্য একটি ভালো ব্রান্ডের কনসিলার বেছে নিতে হবে। একটি ভালো কনসিলার আপনার ডার্ক সার্কেলগুলি কভার করতে সহায়তা করবে। এছাড়াও এটি আপনার ত্বকের কালো দাগ স্পট ঢাকতে সহায়তা করবে।
  • ব্লাশার ব্যবহার করুন: ব্লাশার হালকা ভাবে লাগানো উচিত। আর খুব বেশি ব্লাশার লাগানো উচিত না। আপার ত্বকের সঙ্গে বেসড করে আপনার পছন্দ কালার অনুযায়ী ব্লাশার লাগান।
  • কমপ্যাক্ট পাউডার ব্যবহার করুন: সবশেষে আপনাকে একটি কমপ্যাক্ট পাউডার ব্যবহার করতে হবে। এটি মেকআপ ব্রাইট করে তুলবেই পাশাপাশি মেকআপ স্কিনে ভালোভাবে বসতে এবং অনেক্ষন পর্যন্ত মেকআপ টিকিয়ে রাখবে। তবে কমপ্যাক্টটি দামি কিনবেন।
  • ভালো ব্র্যান্ডের মেকআপ ব্যবহার করতে হবে: বিয়ের দিনে ব্রাইডাল মেকআপ করার জন্য ভালো দামি ব্র্যান্ড দেখে মেকআপ ব্যবহার করতে হবে। সস্তা মেকআপ ত্বকের জন্য তো খারাপই পাশাপাশি ব্রাইডাল লুকস ফুটবে না।
  • অতিরিক্ত মেকআপ করবেন না: ব্রাইডাল মেকআপের জন্য কিছুদিন আগে থেকে আপনি নিজের ত্বকে মেকআপ ট্রায়াল দিতে পারেন এবং তাহলে বুঝতে পারবেন কোন ধরণের মেকআপ আপনার জন্য পারফেক্ট হবে। যাইহোক খেয়াল রাখবেন মেকআপ অতিরিক্ত পরিমাণে করবেন না।
  • পোশাকের সঙ্গে মেকআপ সঠিক রাখুন: আপনি বিয়েতে কেমন পোশাক পড়ছেন তার উপর পুরোপুরি নির্ভর করবে আপনার মেকআপ লুকস। আপনি যদি গ্লিটারি পূর্ণ বা বোল্ড কালারের পোশাক পড়েন তাহলে আপনার মেকআপ হতে হবে হালকা।

চোখের জন্য ব্রাইডাল মেকআপ টিপস:

  • ভুরুতে হাইলাইটার ব্যবহার করুন: চোখে মেকআপ করার জন্য ভুরুটি হাইলাইট করে তোলা ভীষণ প্রয়োজনীয়। তাই প্রথমে ভুরুতে আইব্রো পেন্সিল দিয়ে এঁকে নিন এবং চুলের কালারের সঙ্গে ম্যাচ করে একটু হালকা কালার দিয়ে ভুরু হাইলাইট করে নিন।
  • আই লাইনার লাগিয়ে নিন: চোখ বড় দেখানোর জন্য চোখে নীচে আই লাইনার লাগিয়ে নিন। এবং আই লাইনার যাতে ছড়িয়ে না যায় তার জন্য কমপ্যাক্ট পাউডার হালকা ভাবে আই লাইনারের উপর ছড়িয়ে নিন।
  • ভালো মাস্কারা ব্যবহার করুন: চোখের পাতাগুলিতে অন্যরকম লুকস আনার জন্য অবশ্যই ভালো মাস্কারা ব্যবহার করুন। চোখের মেকআপ করার সময় মাস্কারা একটি লাগানো একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ। তাই এটা ব্যবহার করতে ভুলবেন না। এটি লাগানোর পর চোখের পাপড়ি গুলি বড় দেখায়।
  • আই ল্যাশ লাগান: আপনি যদি আপনার চোখের পাতাগুলি ঘন রাখতে চান তাহলে নকল আই ল্যাশ লাগাতে পারেন। এই আই ল্যাশগুলি চোখ দুটির ইউনিক লুকস আনে।
  • আই ল্যাশ কার্ল করে নিন: চোখের পাতাগুলি সুন্দর দেখানোর জন্য আই ল্যাশ লাগানোর আগে কার্ল করে নিন। দেখতে ভালো লাগবে।

ঠোঁটের জন্য মেকআপঃ

  • ময়শ্চারাইজ: ঠোঁটে লিপস্টিক পড়ার আগে ভালোভাবে ঠোঁট ময়শ্চারাইজার করে নিন। লিপবাম লাগিয়ে রাখুন। তারপর ১০-১৫ মিনিট বাদে ঠোঁটে লিপস্টিক লাগবেন।
  • লিপ লাইনার ব্যবহার করুন: ঠোঁটে লিপস্টিক আপ্লাই করার আগে লিপ লাইনার ব্যবহার করতে হবে। ঠোঁটে উপর এবং নীচে শুরু করে এঁকে নিন।
  • পোশাকের সঙ্গে মানানসই সঠিক লিপস্টিক: লিপস্টিক কালার এমন চয়েস করবেন যাতে তা পোশাকের সঙ্গে পারফেক্ট হয়। তবে আপনার স্কিন কলার খেয়াল রেখে লিপস্টিক ব্যবহার করবেন। লিপস্টিক একটু গাঢ় ভাবে লাগবেন সাজটা ব্রাইট লাগবে।
  • দামি লিপস্টিক ব্যবহার করবেন: লিপস্টিক একটু নামি দামি কোম্পানির কিনবেন যাতে লং লাস্টিং হয়।

বিয়ের কনেরা তাহলে জেনে গেলেন ব্রাইডাল মেকআপ করার নিয়ম। তবে নিজের বিশেষ দিনটি নিজেকে সম্পূর্ন নতুন রুপে নতুন ভাবে সাজিয়ে তুলতে প্রোফেশনাল হাতের ছোয়ার বিকল্প নেই। ব্রাইডাল সহ যে কোন ধরনের সাজের জন্য বুকিং দিয়ে রাখতে পারেন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষিত রীতিকা’র ফেসবুক পেইজ ‘বিউটি স্পার্কলস বাই রিতিকা’য়।

Facebook Comments