গয়নাগাটি নিয়ে ঐশী’র ‘গ্যালারি ও’

রাস্তার জ্যাম, শপিংমলের ভিড় এবং সময়ের অপচয় এড়িয়ে পছন্দের সামগ্রী ক্রেতাদের কাছে পৌঁছে দিয়ে অনলাইন বিক্রেতারা যেমন বেশিরভাগ সময় ঘরে বসেই ব্যবসার কাজ পরিচালনা করতে পারেন, ক্রেতারাও তেমন পণ্য কেনেন ঘরে বসেই। ফেসবুকের পেইজে ঘুরে ঘুরেই এখন গহনা কিনতে পারা যায় ঘরে বসেই। তবে না ছুয়ে না ধরে দাম এবং গুনগত মানের প্রশ্ন থেকেই যায়। সেক্ষেত্রে ইন্ডিয়া থেকে ইমপোর্ট করে দেশীয় অনলাইন বাজারে বিক্রী করে আসমা আকিলা ঐশী কাস্টোমারের বিশ্বস্ততা অর্জন করেছে খুব সময়েই।

বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে গ্রাজুয়েশন করতে থাকা ঐশী’র ‘গ্যালারী ও’ পেইজের বয়স ২ বছরের বেশি না, তবে পরিবারের সকলের শতভাগ সমর্থন মানসম্মত গহনা সঠিক সময়ে কাস্টোমারের দোরগোড়ায় পৌছে দেবার কারনে এর মাঝেই সফল হয়েছেন ২০ হাজারের উপর ফলোয়ার তৈরি করে ফেলতে।

মিনা-পান্না, গাজরা, ম্যাট গোল্ডের ঝুমকা কিংবা মিনাকারি, কুনদন আর ক্রিস্টাল বিডসের কাজ করা সীতাহার অথবা বোহেমিয়ান নেকলেস আর স্টোনের এয়ার রিং, এর সবই পেতে পারেন তুলনামূলক কম দামের মধ্যেই।

ছোটবেলা থেকেই জুয়েলারির প্রতি ফ্যাসিনেশন থেকে অনলাইনে গহনার বিজনেস করা প্রাক্তন স্কুল টিচার আসমা আকিলা’র কাছে কাস্টম ডিজাইনেও গহনা পেতে পারেন অর্ডার সাপেক্ষে।

Facebook Comments