লকডাউনের মধ্যেই সংঘর্ষ, পা কেটে আনন্দ মিছিলে প্রতিপক্ষের

লকডাউনের মধ্যেই সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছে দুই উপজেলার শতাধিক মানুষ, পা কেটে আনন্দ মিছিল করেছে প্রতিপক্ষ।

লকডাউনের মধ্যেও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় থেমে নেই সংঘর্ষ। জেলার সরাইল ও নবীনগর দুই উপজেলায় আধিপত্য বিস্তার করাকে কেন্দ্র করে দু’দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত অর্ধশতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছে।

রবিবার (১২ই এপ্রিল) সকালে সরাইলে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুই দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছে। নোয়াগাঁও ইউনিয়নের আখিতারা গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান কাজল চৌধুরীর সমর্থক ও আব্বাসের সমর্থক গোষ্ঠী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। পরে, পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড রাবার বুলেট ও টিয়ার সেল নিক্ষেপ করে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণে আনে।

এদিকে, নবীনগর উপজেলার কৃষ্ণনগর ইউনিয়নের থানাকান্দি গ্রামে দু’পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন। সংঘর্ষের সময় প্রতিপক্ষের একজনের পা কেটে হাতে নিয়ে আনন্দ মিছিলও করেছে আরেক পক্ষ। এছাড়া বেশ কয়েকটি বাড়ি-ঘরে হামলা ও ভাঙচুর চালিয়ে অগ্নিসংযোগ করা হয়। এ ঘটনায় মামলা করার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

সংঘর্ষের ঘটনায় ২০ জনকে আটক করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

Facebook Comments