গাবতলীতে ১০টাকা কেজি চাল ডিলারের অনিয়মের অভিযোগে ৩সদস্য’র তদন্ত কমিটি

মুহাম্মাদ আবু মুসা : বগুড়া গাবতলীর গোলাবাড়ীতে খাদ্য বান্ধব কর্মসূচীর আওতায় হত দরিদ্র সুবিধা ভোগিদের মাঝে ১০টাকা কেজি চাল বিক্রি অনিয়মের অভিযোগে ডিলার ওয়াজেদ হোসেনের চাল বিক্রি বন্ধ করা হলেও ৩সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে দেয়া হয়েছে। এতে উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা শহিদুল ইসলামকে তদন্ত কমিটির প্রধান করা হয়েছে। এ ছাড়া অপর ২জন সদস্য হলো উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রাশেদুল ইসলাম ও উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার আশরাফ আলী। উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক হারুন-উর-রশিদ ৩সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ ব্যাপারে তদন্ত কমিটির সদস্য উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রাশেদুল ইসলামের সাথে কথা বললে তিনি জানান, আমরা উক্ত বিষয়ে তদন্তের কাজ শুরু করেছি এবং তদন্ত শেষে আগামী রোববারের মধ্যে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে রিপোর্ট দাখিল করবো ইনশাআল্লাহ। উল্লেখ্য, গাবতলী খাদ্য গুদাম থেকে ডিলার ওয়াজেদ হোসেন সময় অনুযায়ী চাল উত্তোলন না করায় ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাঃ রওনক জাহান সরেজমিনে পরিদর্শন ও তদন্ত করে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ১০হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। এ ছাড়া অনিয়মের অভিযোগে ৩সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি করে দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছাঃ রওনক জাহান। ডিলার ওয়াজেদ হোসেনের বিরুদ্ধে প্রথমে অনিয়মের অভিযোগটি করেন স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার ও মহিষাবান ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সুলতান মাহমুদ। এই অভিযোগের ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ডিলারের দোকানটি সিলগালা করে চাল বিক্রি বন্ধ করে দেয়া হয়। ডিলার ওয়াজেদ হোসেন তার বিরুদ্ধে অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার ইউনিয়নে রাজনৈতিকভাবে দ্বন্দ্ব থাকায় প্রতিপক্ষ আমার বিরুদ্ধে নানা ধরনের ষড়যন্ত্র করে ঘটনাটি সাজিয়েছে।

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com