অস্ট্রেলিয়ার এমন সিদ্ধান্তে বাতিল হতে পারে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

স্পোর্টস ডেস্ক : হাতে অনেকটা সময় আছে। চলতি বছরের ১৮ অক্টোবর অস্ট্রেলিয়ায় বসবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর। তবে প্রায় সাত মাস আগেই শঙ্কায় পড়ে গেছে বিশ্বকাপের সপ্তম আসরটি।

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া মহামারি করোনাভাইরাসের কারণেই এমন শঙ্কায় ছেলেদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপটি। এখন পর্যন্ত সারা বিশ্বে প্রায় ১৬ হাজার মানুষ মারা গেছেন এই প্রাণঘাতী ভাইরাসে।

অস্ট্রেলিয়াতেও দিন দিন পরিস্থিতি ভয়াবহ হচ্ছে। দুই হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে এখন পর্যন্ত। জনগণের সুরক্ষার স্বার্থে অস্ট্রেলিয়ান সরকার সীমান্ত লকডাউন করে দিয়েছে। শোনা যাচ্ছে, এই লকডাউন চলতে পারে আরও ছয়-সাত মাস। ফলে বিদেশিরা চাইলেও অস্ট্রেলিয়ায় যেতে পারবেন না।

এমন পরিস্থিতিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পড়ে গেছে শঙ্কায়। আইসিসি তাই আগামী ২৯ মার্চ টুর্নামেন্টের ভবিষ্যত নির্ধারণে সদস্যদের সঙ্গে বসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে যা আলাপ আলোচনা হবে, সবই হবে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে। ঝুঁকি নিয়ে এই মুহূর্তে কোনো বৈঠকে বসবে না বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

সভায় টুর্নামেন্ট পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হতে পারে। যদি এ বছরের টুর্নামেন্টটি পিছিয়ে আগামী বছর নেওয়া হয়, তবে আরেকটা ঝামেলা বাঁধবে। কেননা ২০২১ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরের আসরটি হওয়ার কথা ভারতে। সেক্ষেত্রে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাতিল হওয়ার জোর সম্ভাবনা আছে।

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com