গাবতলীর মহিষাবানে বউ মেলা সম্পন্ন সববয়সী মেয়েদের উপচে পড়া ভীড়

মুহাম্মাদ আবু মুসা : ঢাকঢোল পিটিয়ে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় পূর্ব বগুড়া তথা গাবতলীর ঐতিহ্যবাহী পোড়াদহ মেলার পর গতকাল বৃহস্পতিবার মহিষাবান দেবউত্তর মধ্যপাড়ায় বউ মেলা সম্পন্ন হয়েছে। এই মেলায় শুধু তরুণী, গৃহবধুসহ সব বয়সের মেয়েরা কেনাকাটা করে থাকে। পুরুষদের প্রবেশ নিষেধ থাকায় সব বয়সের মেয়েরা স্বাচ্ছন্দে মতে কেনাকাটা করেছে। প্রায় ২০ বছর পূর্বে থেকে ব্যক্তি মালিকায় স্বল্প পরিসরে জমিতে বউ মেলা হয়ে আসছে। স্থানীয় ব্যবসায়ী শাহজাহান আড়ৎদারের নেতৃত্বে এই বউ মেলাটি হয়। তিনি (শাহজাহান) মৃত্যুর পর স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম মেলাটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তাছাড়াও এলাকার কিছু ব্যক্তিবর্গ বউ মেলা পরিচালনায় সহযোগিতা করে থাকেন। তবে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ থেকে পোড়াদহ মেলার লাইসেন্স হলেও বউ মেলার কোন লাইসেন্স বা অনুমোদন ছাড়াই হচ্ছে। বেলা ১১টায় ফিতা কেটে এবং বেলুন উড়িয়ে বউ মেলার উদ্ধোধন করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রিপু’র পতœী জোবায়দা আহসান জবা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ¦ আমিনুল ইসলাম, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম মোল্লা, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু হাসান, বউ মেলার পরিচালক স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম, ব্যবসায়ী আরিফুল ইসলাম আরিফ, আশিক ইসলাম প্রমূখ। বউ মেলায় আসা জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর এলাকার তরুনী সিমা খাতুন, বগুড়ার সোনাতলার গোসাইবাড়ী গ্রামের মমি বেগম এবং গাবতলীর চকসেকেন্দার গ্রামের গৃহবধু জেমি বেগম জানান, এই মেলায় পুরুষদের প্রবেশ নিষেধ থাকায় আমরা স্বাচ্ছন্দে মতে কেনাকাটা করেছি। উপজেলার বালিয়াদিঘী গ্রামের হোসনে আরা জানান আমরা প্রতি বছরই এই মেলায় এসে কেনাকাটা করে থাকি। সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ছিল এ মেলায় গৃহবধু, তরুনী ও শিশুদের ছিল উপচেপড়া ভীড়। এই মেলায় বিভিন্ন ধরনের শতাধিক দোকানপাট ছিল। মেলার মূল আকর্ষণ ছিলো তরুনীদের জন্য কসমেটিকস্, গৃহবধূদের জন্য সাংসারিক জিসিনপত্র আর শিশুদের জন্য নাগরদোলা ও বিভিন্ন খেলনা। মূলত পোড়াদহ মেলাকে কেন্দ্র করে ওই এলাকায় উৎসবের আমেজ বইছে। যা মেলার আগে এবং পরে সপ্তাহব্যাপী এই আমেজ থাকে। অপর দিকে স্থানীয় রানিরপাড়ায় আরেকটি বউ মেলা বসেছিল। মেলাটির নেতৃত্ব ছিল স্থানীয় ইউপি মেম্বার সুলতান মাহমুদ। এ ছাড়া সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও হয়েছে।

Facebook Comments