‘কুয়েট একদিন আন্তর্জাতিকমানের বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হবে’

জেলা সংবাদদাতা : খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) ১৬তম বর্ষপূর্তি ও বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালিত হয়েছে।
রবিবার (১ সেপ্টেম্বর) সকালে বর্ণিল আয়োজন আর বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে এ দিবস পালিত হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের (কেসিসি) মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক এবং সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. কাজী সাজ্জাদ হোসেন। দিনটিকে স্মরণীয় করতে সেজেছিল পুরো বিশ্ববিদ্যালয়, সর্বত্রই ছিল সাজ-সাজ রব।
এ দিন সকাল সাড়ে ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে অনুষ্ঠিত হয় প্রীতি সমাবেশ। এরপর পৌনে ১০টায় জাতীয় সঙ্গীতের সঙ্গে সঙ্গে উত্তোলন করা হয় জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা। পতাকা উত্তোলন শেষে প্রধান অতিথি কেসিসি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বেলুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের শুভ উদ্বোধন করেন। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনসিসি’র একটি চৌকস দল প্রধান অতিথিকে গার্ড অব অনার প্রদান করে।
এসময় অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কেসিসি’র মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন, কুয়েট একদিন আন্তর্জাতিকমানের বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হবে। ১৯৭৪ সালে যুদ্ধ বিধ্বস্ত বাংলাদেশে খুলনা ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ হিসেবে এ প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম শুরু। যার দূরদর্শীতার প্রমাণ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু খুলনা ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ হিসেবে যে স্বপ্নের বীজ বপন করেছিলেন, তা আজকের কুয়েট।
এসময় শুভেচ্ছা বক্তৃতা করেন বিশ্ববিদ্যালয় দিবস ২০১৯ উদ্যাপন কমিটির সভাপতি ও ইইই অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মহিউদ্দিন আহমাদ।
উল্লেখ্য, ১৯৬৭ সালে খুলনা ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হলেও ১৯৭৪ সালে একাডেমিক কার্যক্রম শুরু হয়ে ১৯৮৬ সালে এ প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশ ইনষ্টিটিউট অব টেকনোলজি (বিআইটি), খুলনায় পরিণত হয় এবং ২০০৩ সালের ০১ সেপ্টেম্বর খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তরিত হয়। এবছর ১৭তম বর্ষে পদার্পন করছে কুয়েট।

Facebook Comments