প্রযুক্তিতে বাংলা ভাষার বৈশিষ্ট্য বিসর্জন নয় : মোস্তাফা জব্বার

বিশেষ প্রতিবেদক : ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, বাংলা ভাষার জাতীয় প্রমিত মান নিয়ে কোনো আপস নয়। কোনো অবস্থাতেই ডিজিটাল প্রযুক্তির সব ক্ষেত্রসহ বাংলা ভাষার ডোমেইনে নাম লেখার ক্ষেত্রে ভাষার বৈশিষ্ট্য বিসর্জন দেয়া যাবে না। বাংলা ডোমেইনের নামে বিদ্যমান জটিলতা নিরসনে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের বিকল্প নেই।

মঙ্গলবার বাংলাদেশ সচিবালয়ে তার দফতরে বাংলা ভাষায় ডোমেইনে বাংলা নাম লেখার বিষয়ে আইক্যান বিষয়ক গভর্নমেন্টাল অ্যাডভাইজারি কমিটির আইক্যান প্রস্তাব পর্যালোচনা-সংক্রান্ত বৈঠকে, সংশ্লিষ্টদের এ নির্দেশ দেন তিনি।

মোস্তাফা জব্বারের সভাপতিত্বে বৈঠকে বিটিআরসি মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মাহফুজুল করিম মজুমদার, বিসিসি পরিচালক মো. এনামুল কবির এবং বাংলা ভাষা উন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ড. মো. জিয়াউদ্দিনসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে আন্তর্জাতিক ডোমেইন ব্যবস্থাপনা নিয়ন্ত্রণ সংস্থা- আইক্যানের পূর্ণ সহযোগিতা আদায়ে জোরালো উদ্যোগ গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়ে মন্ত্রী বলেন, ১৯৮৭ সাল থেকে আমরা ইউনিকোড বাংলার প্রমিত মান ব্যবহার করার জন্য ইউনিকোড কনসোর্টিয়ামকে সম্মত করিয়েছি।

মন্ত্রী বলেন, বাংলা ভাষার মর্যাদা প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে আমরা বুকের রক্ত দিয়েছি। দুঃখজনক হলেও সত্য ইউনিকোড কনসোর্টিয়াম বাংলালিপি উন্নয়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের মতামতকে অনেক ক্ষেত্রেই গৌণভাবে দেখছে। ফলে প্রযুক্তিগত ক্ষেত্রে অক্ষর ব্যবহারে আমরা সমস্যায় পড়ছি। অনেক ক্ষেত্রেই বাংলা ভাষাকে দেবনাগরীর মতো করে দেখা হয়েছে। বাংলাদেশের ভাষাবিজ্ঞানীসহ সাধারণ ব্যবহারকারীদের অভিজ্ঞতা ও মতামতকে বাংলা ইউনিকোড লিপি উন্নয়নে বিবেচনায় রাখা অপরিহার্য বলে উল্লেখ করেন মন্ত্রী।

তিনি আরও বলেন, শেখ হাসিনার সরকার বাংলা ভাষার প্রযুক্তিগত ব্যবহারকে যুগোপযোগী এবং সহজসাধ্য করতে বেশকিছু কর্মসূূচি হাতে নিয়েছে। তথ্যপ্রযুক্তিতে বাংলা ভাষার উন্নয়নে সরকার ১৫৯ কোটি টাকার প্রকল্প গ্রহণ করেছে। বাংলা ভাষা চর্চা ও গবষেণা, বাংলা ভাষার উন্নয়নে কাজ এগিয়ে নেয়া এবং তথ্যপ্রযুক্তিতে এর প্রয়োগ করা আলাদা কোনো এজেন্ডা নয়, এটির সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক আত্মার।

Facebook Comments