প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে ঝালকাঠি আদালতে মামলা

রহিম রেজা, ঝালকাঠি সংবাদদাতা : হোয়াইট হাউজে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছে দেয়া বক্তব্যে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত এবং রাষ্ট্রের সাথে সরাসরি রাষ্ট্রদ্রোহিতা করার অভিযোগে প্রিয়া সাহা ওরফে প্রিয়া বালা বিশ্বাসের বিরুদ্ধে ঝালকাঠির আদালতে নালিশী অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

সোমবার সকালে ঝালকাঠি সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে এ নালিশী মামলা দায়ের করেন, ঝালকাঠি শহর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এবং শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদের ভারপ্রাপ্ত জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. সবির হোসেন।

মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, আসামী প্রিয়া সাহা রাষ্ট্র বিরোধী অপরাধী। সরকারকে সার্বভৌমত্ব হতে বঞ্চিত করতে ষড়ডন্ত্রে লিপ্ত। প্রিয়া সাহার বক্তব্য বাংলাদেশের আইনগত প্রতিষ্ঠিত সরকারের প্রতি ঘৃণা, বিদ্যেষ ও বৈরিতায় উদ্রেক সৃষ্টিকারী।

মামলায় আরও উল্লেখ করা হয়েছে, সম্প্রতি বাংলাদেশে উগ্রমৌলবাদ ও মৌলবাদের বিরুদ্ধে গৃহীত পদক্ষেপ দ্বারা বিশ্বে প্রশংসিত হয়েছে। সেখানে প্রিয়া সাহার উক্তিতে শ্রেণি বিশেষের মধ্যে আতংক সৃষ্টি, শান্তি ভঙ্গ এবং বিদেশীদের সাথে বাংলাদেশের বন্ধুত্বপূর্ন সম্পর্ক রক্ষায় অনিষ্টকর।

বাংলাদেশ দন্ডবিধির ১২১ (এ), ১২৪ (এ), ৫০৫ (এ) ধারায় প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারীসহ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণেরও আবেদন করা হয়েছে এ মামলায়।

মামলায় বাদীর আইনজীবি রুহুল আমীন রিজভী জানিয়েছেন, নালিশী মামলাটি বিচারক এএইচএম ইমরানুর রহমান আমলে নিয়েছেন। তবে এখন পর্যন্ত কোন আদেশ দেননি। আশা করি তার বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি করবেন।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) হোয়াইট হাউসে ধর্মীয় নিপীড়নের শিকার ২৭ ব্যক্তির সঙ্গে বৈঠক করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেখানে ১৬টি দেশের প্রতিনিধি অংশ নেন। বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহাও প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ পান।

প্রিয়া সাহা মার্কিন প্রেসিডেন্টকে বলেন, ‘আমি বাংলাদেশ থেকে এসেছি। বাংলাদেশে ৩ কোটি ৭০ লাখ হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিষ্টান নিখোঁজ রয়েছেন। দয়া করে আমাদের লোকজনকে সহায়তা করুন। আমরা আমাদের দেশে থাকতে চাই।’

এরপর তিনি বলেন, ‘এখন সেখানে ১ কোটি ৮০ লাখ সংখ্যালঘু রয়েছে। আমরা আমাদের বাড়িঘর খুইয়েছি। তারা আমাদের বাড়িঘর পুড়িয়ে দিয়েছে, তারা আমাদের ভূমি দখল করে নিয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো বিচার পাইনি।’

ভিডিওতে দেখা গেছে, একপর্যায়ে ট্রাম্প নিজেই সহানুভূতিশীল হয়ে এই নারীর সঙ্গে হাত মেলান।

প্রিয়া সাহা আর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যকার কথোপকথন প্রকাশ পেলে সমালোচনার ঝড় ওঠে। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকেও তীব্র নিন্দা জানানো হয়।

Facebook Comments