মালালার সঙ্গে ছবি তোলায় মন্ত্রীকে ব্যঙ্গ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পাকিস্তানের অধিকার কর্মী এবং নারী শিক্ষায় অবদানের জন্য নোবেল পুরস্কার পাওয়া মালালা ইউসুফ জাইয়ের সঙ্গে ছবি তুলে কানাডার কুইবেক প্রদেশের শিক্ষামন্ত্রী বিদ্রুপের শিকার হয়েছেন। কেননা প্রদেশটির নিয়ম অনুযায়ী স্কার্ফ পরিধান করে এমন কেউ সেখানে শিক্ষাদান করতে পারবেন না।

ছবিতে দেখা যাচ্ছে, মালালা মাথায় স্কার্ফ পরে শিক্ষামন্ত্রী জ্যাঁ ফ্রাসোয়া রবার্গের সঙ্গে দাঁড়িয়ে আছেন। সম্প্রতি কিউবেকে পাস হওয়া বিতর্কিত আইন অনুযায়ী, সরকারি কর্মচারি ও শিক্ষকসহ কেউ কর্মস্থলে ধর্মীয় প্রতীক হিসেবে পরিচিত কোনো পোশাক পরিধান করতে পারবেন না।

জ্যাঁ ফ্রাসোয়া রবার্গ অবশ্য বলছেন, তিনি শিক্ষার প্রসার এবং আন্তর্জাতিক উন্নয়ন নিয়ে মালালার সঙ্গে আলোচনা করেছেন। সম্প্রতি ফ্রান্স সফরের সময় তিনি মালালার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। তবে এই আইন সমর্থন করেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

কুইবেকের বিতর্কিত আইন নিয়ে সাংবাদিকরা তাকে প্রশ্ন করেন যে, মালালা যদি কুইবেকে শিক্ষাদান করতে চান তাহলে তিনি করবেন? উত্তরে ফ্রাসোয়া রবার্গ বলেন, ‘যদি তেমনটা হয় তাহলে আমি বলব যে এটা কুইবেকের জন্য অত্যন্ত আনন্দের বিষয়। তবে কুইবেকে দায়িত্ব পালনের সময় শিক্ষকরা ধর্মীয় পোশাক পরিধান করতে পারেন না।’

২০১২ সালে তালেবান জঙ্গিরা মালালা ইউসুফজাইয়ের মাথায় গুলি করে। তারপর গুরুতর আহত মালালার চিকিৎসা করা হয় লন্ডনে। সাহসী ভূমিকার কারণে এরপর থেকেই মালালা আন্তর্জাতিকভাবে নারী শিক্ষা বিস্তারে একজন দূতে পরিণত হন। পরে শান্তিতে নোবেল দেয়া হয় তাকে।

বিতর্কিত আইন পাস করালেও মালালার সঙ্গে এমন করে ছবি পোস্ট করার জন্য কানাডার ওই প্রাদেশিক শিক্ষামন্ত্রীকে বিদ্রুপের শিকার হতে হচ্ছে। অনেকেই তাকে নিয়ে নানান মন্তব্য করছেন। তার এমন ভিন্ন ভিন্ন মতের কারণে অনেকে তাকে নিয়ে ব্যাঙ্গও করছেন।

Facebook Comments