সুনামগঞ্জে কালবৈশাখীর তাণ্ডবে ৩০০ ঘরবাড়ি বিধ্বস্থ

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জ জেলার দোয়ারাবাজার, বিশ্বম্ভরপুর ও সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায় কালবৈশাখী তাণ্ডবে প্রায় ৩শ কাঁচা ঘরবাড়ি বিধ্বস্থ হয়েছে।

গতকাল বুধবার (১৭ এপ্রিল) ভোর রাতে কালবৈশাখীর ঝড় বয়ে যায় এইসব এলাকার উপর দিয়ে।

দোয়ারাবাজার উপজেলার সদর ইউনিয়নের মংলারগাঁও, নৈনগাঁও, মাঝেরগাঁও, টেবলাই ও মাইজখলা এবং সুরমা ইউনিয়নের আলীপুর, নূরপুর ও বৈঠাখাই গ্রামের কমপক্ষে ২শ কাঁচা ঘরবাড়ি কালবৈশাখীর তাণ্ডবে বিধ্বস্থ হয়েছে।

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার সলুকাবাদ ইউনিয়নের আমড়াগড়া ও কাপনা এবং ধনপুর ইউনিয়নের কাইতকোনা, চিনাকান্দি ও মহাকুড়া গ্রামের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া কালবৈশাখীর ঝড়ে ৪০টি কাঁচা ঘরবাড়ি বিধ্বস্থ হয়। এই উপজেলার সীমান্তবর্তী গ্রাম কাশিপুরের আদিবাসী সংস্কৃতি কেন্দ্র ঝড়ে বিধ্বস্থ হয়েছে।

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের অফিস থেকে মল্লিকপুরগামী ফিডারের উপর বড় গাছ উপড়ে পড়ায় বিকাল সাড়ে ৪ টা পর্যন্ত (এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত) শহরতলির মল্লিকপুর, কালীপুর এবং ওয়েজখালী এলাকা সরকারি ছিল বিদ্যুৎহীন। ঝড়ে সুনামগঞ্জ শহরতলির মল্লিকপুর, ওয়েজখালী, কালীপুর ও জলিলপুরের কাঁচা ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

সুনামগঞ্জ বিদ্যুৎ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সেলিম বলেন, ‘ফায়ার সার্ভিসের সহায়তায় বিদ্যুৎ লাইনের উপরে পড়া গাছ-গাছালি সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। বিদ্যুতের দুটি খুঁটি ভেঙে পড়েছিল, সেগুলোও নতুন করে বসানো হয়েছে। বিদ্যুতের লাইন টানার কাজ শেষ হলে মল্লিকপুর ফিডারে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হবে।’

Facebook Comments