চলছে রাবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচনের ভোটগ্রহণ

সাকিবুল ফারাবি, রাবি প্রতিনিধি:
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শিক্ষক সমিতির নির্বাচন চলছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের জুবেরী ভবনে সকাল ৯টা থেকে শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ।চলবে বিকাল ৩টা পর্যন্ত। ভোটগ্রহণ শেষে সন্ধ্যায় ফলাফল ঘোষণা করা হবে। নির্বাচনে এবার ভোটার রয়েছেন এক হাজার ১৩০জন। নির্বাচনে ৩০ প্রার্থী লড়ছেন।
জানা গেছে, চলতি মাসের ১৩ এপ্রিল প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশের পর থেকেই প্রচার-প্রচারণা নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করেন প্রার্থীরা। তারা ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরেছেন। দুটি প্যানেলের প্রার্থীরাই তাদের সফলতা ও ভোটারদের চাওয়া-পাওয়া পূরণের আশ্বাস দিয়ে প্রচার-প্রচারণার চালান।
নির্বাচনে ১৫টি পদের বিপরীতে ৩০জন প্রার্থী দুটি প্যানেল থেকে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। আওয়ামী লীগ সমর্থিত মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ হলুদ প্যানেলে এবং বিএনপি-জামায়াতপন্থীপন্থীদের বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদ ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী শিক্ষক গ্রুপ সাদা প্যানেলে নির্বাচন করছেন।
নির্বাচনে হলুদ প্যানেল থেকে সভাপতি পদে বাংলা বিভাগের শিক্ষক খন্দকার ফরহাদ হোসেন (অনীক মাহমুদ) এবং সাধারণ সম্পাদক পদে পপুলেশন সায়েন্স অ্যান্ড হিউম্যান রিসোর্স ডেভেলপমেন্ট বিভাগের শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম খান প্রার্থী হয়েছেন। তাদের বিপরীতে সাদা প্যানেল থেকে সভাপতি পদে প্রাণিবিদ্যা বিভাগের সাইফুল ইসলাম ফারুকী এবং সাধারণ সম্পাদক পদে পরিসংখ্যান বিভাগের আমিনুল হক প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

হলুদ প্যানেল থেকে সহ-সভাপতি পদে শিক্ষক সাইয়েদুজ্জামানের বিপরীতে সাদা প্যানেলের জে এ এম সকিলউর রহমান (শাহীন), যুগ্ম-সম্পাদক পদে মোজাম্মেল হোসেন বকুলের বিপরীতে মুহা. আ. হামিদ এবং কোষাধ্যক্ষ পদে রেজিনা লাজের বিপরীতে সাইফুল ইসলাম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।এ ছাড়াও সদস্য পদে হলুদ প্যানেল থেকে শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ, শেখ শামসুল আরেফিন, এ এম শহীদুল আলম, সুশান্ত কুমার অধিকারী, রফিকুল ইসলাম (রয়েল), আজিজুর রহমান, এ কে এম মাহমুদুল হক (টুটুল), ওমর ফারুক (মাসুদ), কামারুজ্জামান ও সোমলাল দাস এবং সাদা প্যানেল থেকে রেজাউল করিম, আলতাফ হোসেন, আতাউল্যাহ, শাহাদাৎ হোসেন, ইয়ামিন হোসেন, সারওয়ার পারভেজ, মোস্তাফিজুর রহমান, শহিদুল ইসলাম, তোহিদুল ইসলাম এবং এ এন এম জাহাঙ্গীর কবীর প্রার্থী হয়েছেন।
নির্বাচন কমিশনার অধ্যাপক এ বি এম হামিদুল হক বলেন, আমাদের শিক্ষক সমিতির নির্বাচন প্রক্রিয়া অনেক স্বচ্ছ। আশা করছি নির্বাচন সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলকভাবে আগামীকাল নির্বাচন শেষ হবে।’

Facebook Comments