৫০ হাজার আসনের ‘শেখ হাসিনা’ ক্রিকেট স্টেডিয়াম

বাংলাদেশে একটি নতুন স্টেডিয়াম তৈরির উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি), যার নাম হবে শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম। স্টেডিয়ামটি হবে ঢাকার পূর্বাচলে। গতকাল শনিবার বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান জানিয়েছেন, তিন বছরের মধ্যে এই স্টেডিয়ামের নির্মাণ কাজ শেষ করতে চান তারা।

এদিকে স্টেডিয়াম নির্মাণে ১০ লাখ টাকার বিনিময়ে পূর্বাচলে ৩৭.৪৯ একর জমি বিসিবির নামে হস্তান্তর করেছে সরকার। এদিকে বৈঠক শেষে বোর্ড প্রধান বলেন, ‘পূর্বাচলে ৩৭.৪৯ একর জমি আমরা পেয়েছি। সেজন্য বোর্ড মিটিংয়ে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়েছি। আমরা ঠিক করেছি এটার জন্য এক্সপ্রেশন অব ইন্টারেস্ট চেয়ে আন্তর্জাতিকভাবে দরপত্র দিব। বেসিক্যালি ডিজাইন এবং কনসালটেন্সির জন্য।’


এদিকে পরামর্শক ও নকশাকার নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘তাদের (নকশাকার ও পরামর্শক) নির্বাচন করার প্রক্রিয়া নিয়ে আলাপ করেছি। বোর্ডের লোক তো থাকবেই, বাইরের থেকেও বিশেষজ্ঞ এই কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করব। আগামী তিন বছরের মধ্যে এই স্টেডিয়ামটা সম্পূর্ণ করতে চাই।’

তাছাড়া এবার বিসিবি নিজস্ব খরচে, নিজস্ব অর্থায়নেই করতে যাচ্ছে ক্রিকেটের জন্য আধুনিক স্টেডিয়াম। পাপন বলেন, ‘পুরোটা করবে বিসিবি। আমরা নিজেরাই করব, নিজ খরচে করব। যেহেতু আমরা চাচ্ছি স্টেট অব আর্ট স্টেডিয়াম হবে। দেখার মতো একটা জায়গা হবে। এটার ধারণ ক্ষমতা বেশি হবে। এবং এটার ডিজাইনের কারণে খরচ বেশি হবে। আমরা চাইছি একটা আইকনিক কিছু করব।

শুধু স্টেডিয়ামই নয় এর সঙ্গে একাডেমি, ইনডোরসহ সব সুবিধাই রাখতে চায় বিসিবি। এ ব্যাপারে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘এই স্টেডিয়ামের সঙ্গে একাডেমি থেকে শুরু করে ইনডোর, সুমিং পুল, জিমনেশিয়াম যা যা লাগে সবই থাকবে। দর্শক ধারণ ক্ষমতা কমপক্ষে ৫০ হাজার হবে।’

স্টেডিয়াম লাগোয়া একটি পাঁচ তারকা হোটেলও করতে চায় বিসিবি, ‘পাঁচ তারকা মানের একটা হোটেলও ওখানে চাচ্ছি আমরা। হোটেল আমাদের আওতায় থাকবে কিন্তু হোটেল আমরা বানাচ্ছি না। আগে স্টেডিয়াম নিয়ে কাজ করব।’

Facebook Comments