ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের রাজনৈতিক চরিত্র নষ্ট: তোফায়েল

ভোলা, ২১ অক্টোবর, ২০১৮ : বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের রাজনৈতিক চরিত্র নষ্ট। কারণ তিনি ২০০৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর শিবিরের একটি সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন। সেখানে তিনি শিবিরের গুণ-কিত্তন করেছেন।

তিনি বলেন, টিভি অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট সাংবাদিক মাসুদা ভাট্রিকে অপমান করায় মইনুল হোসেনকে ঘৃণা জানিয়েছেন সমস্ত নারী সমাজ।

মন্ত্রী আজ সকালে সদর উপজেলার বাপ্তা ইউনিয়নে এক সভায় প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট নারী নেত্রী মিসেস অনোয়ারা আহমেদ বিশেষ অতিথি ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, মাসুদা ভাট্রি একজন প্রখ্যাত, সৎ ও আদর্শ সাংবাদিক, কিন্তু মইনুল হোসেন তা না। দেশের ৫৫জন বরেণ্য সাংবাদিক এ ঘটনার জন্য মইনুল হোসেনকে ক্ষমা চাইতে বলেছেন।

তোফায়েল বলেন, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারী খোন্দকার মোস্তাকের রাজনৈতিক দলের নেতা হয়েছিল এই মইনুল হোসেন। এখন আবার শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টাকারীদের সাথে হাত মিলিয়েছেন। খুনীদের সাথে নতুন জোট করেছে।

বিএনপির সমালোচনা করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, তাদের কোন নেতা নেই। তাদের (বিএনপির) চেয়ারপার্সন দুর্নীতির মামলায় আসামি হয়ে জেলে। যাকে চেয়ারম্যান করা হয়েছে তিনি খুন মামলায় যাবজ্জীবন কারাদন্ডপ্রাপ্ত। এতে যখন কাজ হয়না, তখন ভাড়া করেছে ড. কামাল হোসেনকে।

তিনি বলেন, বিএনপিও এ দেশে দীর্ঘদিন ক্ষমতায় ছিলো। তারা কোন কাজ করেনি। তারা লুটপাটে ব্যস্ত ছিলো। আওয়ামী লীগের ওপর ভয়াবহ অত্যাচার করেছে। সেসময় আজকের মহামান্য রাষ্ট্রপতিকে ভোলায় রাজনৈতিক কর্মসূচি করতে দেয়নি।

মন্ত্রী এসময় সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আস্থাশীল থেকে সকল অপশক্তি প্রতিহত করে নৌকার পক্ষে কাজ করার আহবান জানান।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আবার প্রধানমন্ত্রী হলে দেশের সকল উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ইয়ানুর রহমান বিপ্লব মাল্লার সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য দেন, জেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মমিন টুলু, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো: মোশারেফ হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব প্রমুখ।

Facebook Comments