প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট দিচ্ছে মালদ্বীপ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বিরোধী দলের নানা অভিযোগের মধ্যেই মালদ্বীপে শুরু হয়েছে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। স্থানীয় সময় সকাল ৮টা থেকেই শুরু হয় এ ভোটগ্রহণ। চলবে বিকাল পর্যন্ত। এ নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না বলে জানিয়েছে এশিয়ান নেটওয়ার্ক ফর ইলেকশন (এএনএফআরইএল)।

নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ ইয়ামিন আবদুল গাইয়ুমের ক্ষমতাসীন প্রগ্রেসিভ পার্টি অব মালদ্বীপ (পিপিএম) এবং ইব্রাহিম মোহাম্মদ সোলিহের বিরোধী দলগুলোর যৌথ জোট।

এই নির্বাচনে প্রায় দুই লাখ ৬০ হাজার ভোটার ভোট দেওয়ার সুযোগ পাবেন। এই নির্বাচনের মাধ্যমে চীন মালদ্বীপে তার প্রভাব আরও বাড়াতে চায়। অন্যদিকে ভারতের লক্ষ্য বেইজিংঘেঁষা প্রেসিডেন্ট ইয়ামিনের জন্য নির্বাচনে বিপর্যয় সৃষ্টি করা।

নির্বাচনের ব্যাপারে এএনএফআরইএল জানিয়েছে, এই নির্বাচন স্বচ্ছ ও অবাধ হবে না। কারণ ইয়ামিন সরকার কঠোর আইনজারিসহ বিরোধিদের ওপর ধর-পাকড় চালাচ্ছে।

২০১৩ সালের নির্বাচনে নাশিদকে পরাজিত করে ইয়ামিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। এবারও জয় পেতে বিরোধীদের ওপর দমনপীড়নের অভিযোগ উঠেছে ইয়ামিনের বিরুদ্ধে।

নির্বাচনটি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন(ইইউ) ও যুক্তরাষ্ট্র। উভয়ই হুমকি দিয়েছে যে, গণতান্ত্রিক পরিস্থিতির উন্নতি না হলে মালদ্বীপের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হতে পারে।

মোট ২৬টি প্রবাল প্রাচীর ও ১১৯২টি ছোট ছোট দ্বীপের সমন্বয়ে গঠিত মালদ্বীপ। এর জনসংখ্যা চার লাখ। দেশটির অর্থনীতির একটি বিশাল অংশ আসে এর পর্যটন খাত থেকে। কিন্তু সম্প্রতি জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে এর পর্যটন খাত কিছুটা ঝুঁকির মধ্যে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

Facebook Comments