ড. ইউনুসের মধ্যস্থতায় বিএনপির আগ্রহ প্রকাশ

28.unues_--fakrul_28-8-13একুশেরআলো২৪ডেস্ক: বাংলাদেশের  চলমান রাজনৈতিক সংকট আর নির্বাচন নিয়ে  টানপোড়েনের অবসান ঘটাতে সংলাপের বিষয়ে নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনুস মধ্যস্থতার বিষয়ে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি আগ্রহ প্রকাশ করেছে।
এই বিষয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন নির্দলীয় সরকার ইস্যুতে বিএনপি সংলাপ করতে প্রস্তুত আছে। তবে, সে ব্যাপারে সরকারি দলকে রাজি হতে হবে।

তিনি ড. ইউনুসের মধ্যস্থতার বিষয়ে বলেন ‘এটা ভালো উদ্যোগ এবং এই মূহুর্তে এর  চাইতে ভালো কোন পথ নেই।’
মঙ্গলবার দলীয় কার্যালয়ে  আলাপকালে মির্জা ফখরুল আরো বলেন,‘তিনি বলেন, বিরোধী দলের সঙ্গে আলোচনা করে তাদের মতামতকে গুরুত্ব দিতে হবে। বায়বীয় প্রস্তাবের সুযোগ নেই। সংলাপের জন্য সরকারকেই উদ্যোগ নিতে হবে।’
মির্জা ফখরুল বলেন, সরকারের মন্ত্রীরা তাদের মতো করে   বক্তব্য দিচ্ছেন। সরকারি দল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, আলোচনার সুযোগ নেই। আবার আইনমন্ত্রী আলোচনার কথা বলেছেন। সরকারি দল নিজেরাও জানেন না তারা কি করতে চায়।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব বলেন, সংবিধানের পঞ্চদশ  সংশোধনীর মাধ্যমে তারা গুরুতর রাজনৈতিক সংকট তৈরি করেছে। অন্তবর্তীকালীন সরকারের রূপরেখা বর্তমান সংবিধানে নেই।
বিরাজমান সংকট সমাধানের আহবান জানিয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আসন্ন সংসদ অধিবেশনে বিল এনে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা পুনর্বহাল করুন।
অতি দ্রুত সমঝোতা  না হলে সংঘাত অনিবার্য বলেও মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল ।

সংঘাত সৃষ্টির জন্য বিএনপিকে দায়ী করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার  দেয়া বক্তব্যের  কঠোর সমালোচনা করে বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, বিএনপি কোনো সময় সংঘাত, গোলোযোগ সৃষ্টি করেনি। পাল্টা আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল  বলেন- ১৯৯৫-৯৬ এবং ২০০১ সালে তারা গোলোযোগ সৃষ্টি করেছিল এবং ১৭৩ দিন ধর্মঘট করে দেশকে অচল করে দিয়েছিল।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার মিরপুরের ইউনূস সেন্টারে মুক্তিযোদ্ধা গণপরিষদ নামে একটি সংগঠনের সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে বলেন, ‘আগামী জাতীয় নির্বাচনে গোলমাল হলে আমাদের কপালে দুঃখ আছে। যে দুঃখের প্রাপ্য আমাদের নয়। তাই শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য, নির্বাচনের আগে সংকট নিরসনে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’

Facebook Comments