ভারতের সংসদে লঙ্কাকান্ড: হাতাহাতি, পিপার স্প্রে

varotনয়া দিল্লি, ১৩ ফেব্রুয়ারি: ভারতের সংসদ লোকসভায় তেলাঙ্গনা রাজ্য বিল নিয়ে ঘটে গেল লঙ্কাকান্ড। বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুশীল কুমার শিন্ডে বিলটি সংসদে উত্থাপন করার সাথে সাথেই শুরু হয় প্রচণ্ড হইচই। এ সময় সংসদের ভিতরে থাকা কিছু এমপি পিপার স্প্রে (মরিচের গুঁড়ো) করেন। সৃষ্টি হয় এক অরাজক অবস্থা। অনেক এমপি এতে মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়েন।

এদিকে বিল লোকসভায় উত্থাপনকালে ভিতরে ও লোকসভার বাইরে চলতে থাকে তীব্র প্রতিবাদ। পিপার স্প্রেতে টিডিকে দলের সদস্য কে নারায়ণ রাও লোকসভার ভিতরেই অচেতন হয়ে পড়েন। দ্রুততার সঙ্গে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে হাসপাতালে। রাগে ক্ষোভে টিডিপি দলের এমপি ভানুগোপাল রেড্ডি স্পিকারের মাইক্রোফোন ভেঙে ফেলেন। এ ঘটনায় যাদেরকে বরখাস্ত করা হয়েছে তার মধ্যে কংগ্রেস দলের এমডি লাগাদাপতিও রয়েছেন।
রিপোর্টে বলা হয়, লোকসভার অধিবেশনকালে তার হাতে ছিল একটি ছুরি। এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এমপি ভানুগোপাল। বলেছেন, তিনি শুধু স্পিকারের মাইক্রোফোন হাত দিয়ে সরিয়ে রাখার চেষ্টা করছিলেন। লোকসভা যখন এমন রণক্ষেত্রে পরিণত হয় তখন দ্রুততার সঙ্গে সেখানে মোতায়েন করা হয় মার্শাল। রাজাগোপাল ও অন্যদের চিকিৎসা সেবা দেয়া হয়। বাকি এমপিদের দ্রুততার সঙ্গে এম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়া হয় রাম মনোহর লোহিয়া হাসপাতালে। এদিন তেলাঙ্গনা বিলের প্রতিবাদ করায় ১৮ জন এমপিকে বরখাস্ত করা হয়েছে।
লোকসভার স্পিকার মিরাকুমারি এ ঘটনাকে ভারতীয় সংসদের ইতিহাসে চরম লজ্জাজনক ঘটনা বলে উল্লেখ করে এর তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, এ দিনটি লজ্জাজনক দিন হিসেবে অভিহিত হবে।
সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী কমলনাথ বলেন, সংসদীয় গণতন্ত্রের ইতিহাসে এটি একটি নজিরবিহীন ঘটনা। এ ঘটনাকে আমাদের মানমর্যাদা হেয় করেছে। জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে সাংবাদিকদের জানান তিনি।

Facebook Comments