বুকের দুধ খাইয়ে কুকুর ছানা বাঁচালেন!

Infor.আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ১০ ফেব্রুয়ারী: মাতৃস্নেহ ও মাতৃদুগ্ধ প্রতিটি প্রাণীরই প্রয়োজন। সে হোক মানব শিশু কিংবা অন্যকোনো পশু। কিন্তু মা বিহীন একটি কুকুর ছানাকে নিজ বুকের দুধ খাইয়ে প্রাণে বাঁচিয়েছেন এক নারী। কুকুর ছানাটি এখন সম্পূর্ণ সুস্থ আছে। ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডো অঙ্গরাজ্যে।
সম্প্রতি কলোরাডোর একটি টেলিভিশন চ্যানেল এ নিয়ে বিস্তারিত একটি সংবাদ প্রচার করেছে। সংবাদে জানানো হয়, ছোট্ট কালো কুচকুচে কুকুরছানাটির জন্মের সময়ই তার মা মারা যায়। কিন্তু জন্মের পর থেকে ছানাটি কোনোভাবেই কিছু খাচ্ছিল না। ফলে ধীরে ধীরে সেটি নিস্তেজ হয়ে পড়তে থাকে। পরে উপায়ান্তর না দেখে নিজের বুকের দুধ ছানাটিকে খাওয়ায় তার মালিক। আর এতেই ছানাটি আবার শক্তি ফিরে পায়।
এ বিষয়ে সাক্ষাৎকারে ওই নারী বলেন, ‘ওটা খুব দুর্বল হয়ে পড়েছিল। এমনকি নড়াচড়াও করতে পারছিল না। তারপরেই আমি ওকে আমার বুকের দুধ খাওয়ানোর সিদ্ধান্ত নেই। আমি জানি না আর কি করা যেত। কিন্তু আমি খুব মরিয়া হয়ে উঠেছিলাম। আমি ওটাকে বসে বসে মরতে দেখতে পারতাম না।’
সাক্ষাৎকারের পর ওই নারী কুকুর ছানাটিকে তার বুকের দুধ খাওয়ানোর ছবি পোস্ট করেন ফেসবুক পেজে। আর এতেই হইচই পড়ে যায়।
ওই নারী জানান, তার ওই ছোট্ট কুকুরছানাটির নাম টুবস। কিছুদিন তাকে বুকের দুধ খাওয়াতে হয়। এখন অবশ্য সেটি দিব্যি ভালো আছে এবং নিয়মিত দুধ খাচ্ছে বলেও জানান ওই নারী।
তবে পশু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মানুষের বুকের দুধ কুকুরের জন্য আদর্শ কোনো খাবার নয়। যখন ওই নারী এই কাজটি করেছেন তখন অবশ্য জরুরি অবস্থা ছিল। তাই হয়তো কুকুরটি বেঁচে গেছে।
উল্লেখ্য, কুকুরকে মানুষের বুকের দুধ খাওয়ানোর বিষয়টি কিন্তু নতুনও নয়। এর আগে ২০১২ সালে ব্রিটেনে দুই সন্তানের মা টেরি গ্রাহাম জানিয়েছিলেন তিনি প্রায় দুবছর তার মেয়ের মাতৃহীন ‘স্পাইডার’ নামের ছোট্ট কুকুর ছানাটিকে বুকের দুধ খাওয়াতেন।

Facebook Comments