শুক্রবার সৌদি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামীকাল শুক্রবার বিকালে বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদের আমন্ত্রণে পাঁচ দিনের সরকারি সফরে সৌদি আরবে যাচ্ছেন। সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ সিংহাসনে আরোহনের পর এটাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রথম সৌদি আরব সফর। খবর বাসসের।

শুক্রবার বিকাল ৪টায় প্রধানমন্ত্রী এবং তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বাংলাদেশ বিমানের ভিভিআইপি ফ্লাইটটি হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে জেদ্দার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে।

এদিন রাত ৮টায় (সৌদি আরবের স্থানীয় সময়) বিমানটির জেদ্দা’র কিং আব্দুল আজিজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের কথা রয়েছে।

জেদ্দা পৌঁছা মাত্রই প্রধানমন্ত্রীকে বিমানবন্দরে সৌদি সেনাবাহিনীর একটি বিশেষ সুসজ্জিত দল গার্ড অব অনার প্রদান করবে।

সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এবং ওআইসি’তে স্থায়ী প্রতিনিধি গোলাম মাসিহ এবং সৌদি সরকারের একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাবেন।

সৌদি আরব সফরকালে প্রধানমন্ত্রী জেদ্দা রয়্যাল কনফারেন্স প্যালেসে অবস্থান করবেন।

প্রধানমন্ত্রী শুক্রবার রাতে পবিত্র মক্কা নগরীর হারাম শরিফে পবিত্র ওমরাহ পালন করবেন এবং শনিবার ফজরের নামাজ আদায় করবেন।

শনিবার বিকালে প্রধানমন্ত্রী জেদ্দায় এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে রিয়াদে বাংলাদেশের চ্যান্সেরি কমপ্লেক্স এবং বাংলাদেশ ভবন নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

রবিবার জেদ্দা নগরীর আল আন্দালুসে সৌদি বাদশাহের আল সালাম প্রাসাদে প্রধানমন্ত্রী সৌদি বাদশাহের সঙ্গে এক দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হবেন। বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক সার্থ সংশ্লিষ্ট সব বিষয় ছাড়াও আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক বিষয়েও আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে।

সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মাদ বিন নায়েফ বিন আব্দুল আজিজ বাদশাহের প্রাসাদে প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানাবেন।

প্রধানমন্ত্রীর সৌদি সফর নিয়ে গত বুধবার অনুষ্ঠিত এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী জানান, সৌদি আরবে বাংলাদেশের শ্রমবাজার সম্প্রসারণ, দ্বিপাক্ষিক ব্যবসা-বাণিজ্য,বিভিন্ন প্রকল্পে সৌদি সহযোগিতা বৃদ্ধি এবং হজ ব্যবস্থাপনার মতো বিষয়গুলো প্রধানমন্ত্রীর আগামী ৩ থেকে ৭ জুন পর্যন্ত অনুষ্ঠিতব্য সৌদি সফরকালীন সৌদি বাদশাহের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলোচনায় প্রধান্য পাবে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে এই সফরে পররাষ্ট্র মন্ত্রীসহ ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দ এবং বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হচ্ছেন।

এর আগে, রবিবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর জেদ্দা রয়্যাল কনফারেন্স প্যালেসে বেশ কয়েকজন সৌদি মন্ত্রী এবং সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

সৌদি সরকারের প্রতিরক্ষা বিষয়ক উপমন্ত্রী সালমান বিন সুলতান আল সৌদ এবং সৌদি বাদশাহের রয়্যাল কাউন্সিলের উপদেষ্টা ইয়াসের আল মিয়া’র ও একইদিন বিকালে জেদ্দা রয়্যাল কনফারেন্স প্যালেসে প্রথানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের কথা রয়েছে।

সোমবার সকালে প্রধানমন্ত্রী বিমানে মদিনার উদ্দেশ্যে জেদ্দা ত্যাগ করবেন এবং মদিনায় তিনি মদিনা হিলটন হোটেলে অবস্থান করবেন।

প্রধানমন্ত্রী সেখানে মসজিদে নববীতে আসর এবং মাগরিবের নামাজ একসঙ্গে আদায় করবেন এবং হজরত মোহাম্মদ (সা.) এর রওজা মোবারক জিয়ারত করবেন।

প্রধানমন্ত্রী মদিনার প্রিন্স মোহাম্মাদ বিন আব্দুল আজিজ বিমান বন্দর থেকে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় (সৌদির স্থানীয় সময়) দেশের উদ্দেশ্যে মদিনা ত্যাগ করবেন। সন্ধ্যা ৭টা ৩০ মিনিটে (ঢাকার স্থানীয় সময়) প্রধানমন্ত্রী এবং তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমানটির হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের কথা রয়েছে।

এর আগে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০০৯ সালের এপ্রিলে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা গ্রহণ করার পর তৎকালীন সৌদি বাদশাহ আব্দুল্লাহ বিন আব্দুল আজিজের আমন্ত্রণে সৌদি আরব সফর করেন।

প্রধানমন্ত্রী ২০১৩ সালের নভেম্বরে একবার ওমরাহ পালনের উদ্দেশ্যেও সৌদি আরব যান।

Facebook Comments