জাহিদের ‘শিকল’ও খুলে দিল বাফুফে

ম্যাচের আগের রাতে মাতলামি করে নিষেধাজ্ঞার শিকল পরানো হয়েছিল বাংলাদেশ জাতীয় দলের উইঙ্গার জাহিদ হোসেনকে। সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। এর আগে একইভাবে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া হয় মামুনুল ইসলাম এবং সোহেল রানার। এই তিন ফুটবলারই দোষ স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে ফেডারেশনের কাছে চিঠি দিয়ে পার পেলেন।

বাফুফে ন্যাশনাল টিমস কমিটির রোববারের সভায় জাহিদের নিষেধাজ্ঞা ওঠানোর সিদ্ধান্ত হয়। কমিটির ডেপুটি চেয়ারম্যান তাবিথ আউয়ালের সভাপতিত্বে হওয়া বৈঠকের পর জানানো হয়, গত মঙ্গলবার দোষ স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে জাহিদের দেওয়া চিঠির প্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ভবিষ্যতে জাতীয় ফুটবল দলের কোড অব কন্ডাক্ট ভাঙলে, এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি করলে নিষেধাজ্ঞা ওঠানোর বিষয়টি বাতিল করে আরও কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জাহিদকে সতর্ক করে দিয়েছে ন্যাশনাল টিমস কমিটি।

গত ১২ মার্চে মামুনুল ও সোহেলের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। নিষিদ্ধ হওয়া চার জনের মধ্যে ইয়াসিন খান এখনও ক্ষমা চেয়ে বাফুফেকে চিঠি দেননি।

ভারতে হওয়া সব শেষ সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের গ্রুপ পর্ব থেকেই ছিটকে পড়ে বাংলাদেশ। দেশের মাঠে বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপে সেমি-ফাইনালে বাহরাইনের যুবাদের কাছে হেরে থেমে যায় মামুনুলদের পথ চলা। এই দুই টুর্নামেন্টে ব্যর্থতার তদন্ত করে ফ্যাক্ট ফাইন্ডিংস কমিটি সাত ফুটবলারের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ এনে প্রতিবেদন দেয়। গত মার্চে জাতীয় দল থেকে মামুনুল ও জাহিদকে এক বছরের জন্য এবং ইয়াসিন ও সোহেলকে ৬ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়।

Facebook Comments