সশস্ত্র যুদ্ধে অর্জিত বাঙালিত্বকে উপেক্ষায় এ ধরণের ঘটনার পুনরাবৃত্তি

একুশেরালো২৪ ডেস্ক:  কুমিল্লার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে পূজা মণ্ডপে কোরআন রাখার অভিযোগের সত্যতা, অভিযোগ সত্য হলে তার সঙ্গে কারা তাদের জড়িত খুঁজে বের করা ও সারাদেশের বিভিন্ন স্থানে পূজা মণ্ডপে হামলার ঘটনার স্বচ্ছ ও সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের বিচার দাবি করেছে অদলীয় রাজনৈতিক সামাজিক মঞ্চ।

১৪ অক্টোবর ২০২১, বৃহস্পতিবার অদলীয় রাজনৈতিক সামাজিক মঞ্চ-এর পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, স্বাধীন দেশে এই ধরণের ঔপনিবেশিক মানসিকতার বহিঃপ্রকাশ কোনোভাবেই কাম্য নয়। স্বাধীনতা সংগ্রাম ও সশস্ত্র যুদ্ধের মধ্য দিয়ে অর্জিত বাঙালিত্বকে উপেক্ষা করায় বিগত অর্ধশত বছর ধরে এ ধরণের ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটছে। রাজনৈতিক দিক থেকে দলের পাশাপাশি অদলীয় শ্রম-কর্ম-পেশার, সকল জাতিগোষ্ঠী ও ধর্মীয় প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে শাসনব্যবস্থা থাকলে এই ধরণের ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটতো না।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, বাঙালির তৃতীয় জাগরণের এই পর্যায়ে সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে বাঙালিত্বের শত্রুদের পিছু হটাতে হবে। অন্যথায় এই অপশক্তি বাংলা, বাঙালি ও স্বাধীনতার অন্তরায় হয়ে থাকবে।

বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন অদলীয় রাজনৈতিক সামাজিক মঞ্চের প্রধান সমন্বয়ক সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক হুমায়ুন কবির হিরু, ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানের অন্যতম সংগঠক ও প্রকাশক মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ, শ্রমিক নেতা মোঃ মোশারফ হোসেন, তৃতীয় চতুর্থ শ্রেণীর সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি এম এ আউয়াল, সামাজিক শক্তির সাধারণ সম্পাদক মোশারেফ হোসেন মন্টু, সংস্কৃতি কর্মী সাকিল সৈকত, ইঞ্জিনিয়ার রায়হান তানভীর, ব্যারিস্টার গোলাম আইয়ুব অভ্র, অয়ন আমান, শিপন রবিদাস প্রাণকৃষ্ণ।