সন্তান কতক্ষণ অনলাইনে থাকে জানাবে ইনস্টাগ্রাম

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : ২০২২ সালের শুরুতেই আসছে ইনস্টাগ্রামের নতুন ফিচার ‘প্যারেন্টাল কন্ট্রোল’ ফিচার। এমনটাই ঘোষণা দিয়েছেন ইনস্টাগ্রাম প্রধান অ্যাডাম মোসেরি। সম্প্রতি এক ব্লগ পোস্টে একেবারে দিনক্ষণ উল্লেখ করেই নতুন এ ফিচারের কথা জানিয়েছেন তারা।

‘প্যারেন্টাল কন্ট্রোল’ ফিচারটির মাধ্যমে, অভিভাবকরা তার কিশোর বয়সী সন্তান ইনস্টাগ্রামে কতক্ষণ থাকছে সে তথ্য জানতে পারবেন। এমনকি তারা নির্দিষ্ট সময়সীমাও বেঁধে দিতে পারবেন। এছাড়া সন্তান কাউকে রিপোর্ট করলে সে বিষয়েও জানতে পারবেন অভিভাবকরা।

আজকাল স্মার্টফোন হাতে সন্তানরা কি করছে তার কোনো হদিসই পান না অভিভাবকরা। অনলাইন ক্লাস, কোচিং ছাড়াও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কারণে কিশোর বয়সী সন্তানদের হাতে তুলে দিতে হচ্ছে স্মার্টফোন। এর মাঝে তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন জায়গায় সময় নষ্ট করছে। মূলত লাগাম টানার জন্যই এ ফিচারটি এনেছে বলে ধারণা করছেন অনেক প্রযুক্তিবোদ্ধা।

তবে এ ফিচারটি নিয়ে ইনস্টাগ্রাম বেশ অনেক দিন ধরেই কাজ করছে। প্যারেন্টাল কন্ট্রোল ফিচারের পাশাপাশি অভিভাবকদের জন্য ‘এডুকেশনাল হাব’ নির্মাণের দাবিও করেছে ইনস্টাগ্রাম। প্রতিষ্ঠানটি বলছে, শিশুর সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার নিয়ে অভিভাবকদের টিপস এবং টিউটোরিয়াল দেবে ওই হাবটি।

নভেম্বর মাসে ‘টেক এ ব্রেক’ ফিচার নিয়ে পরীক্ষা চালানো শুরু করে ইনস্টাগ্রাম। প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ বলছে, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, আয়ারল্যান্ড, কানাডা, নিউ জিল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়ায় ৭ অক্টোবর চালু হচ্ছে ফিচারটি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, আয়ারল্যান্ড, কানাডা, নিউজিল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়ায় চালু হচ্ছে আজকালের মধ্যেই। বড় পরিসরে বৈশ্বিক বাজারে শিগগির ফিচারটি উন্মুক্ত করার পরিকল্পনা রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির।

একটানা বেশি সময় স্ক্রল করলে ব্যবহারকারীদের সতর্ক করে নোটিফিকেশন দেবে ফিচারটি। কতোক্ষণ স্ক্রল করার পর নোটিফিকেশন আসবে, সেটি নির্ধারণ করে দিতে পারবেন ব্যবহারকারী নিজেই। ইনস্টাগ্রাম অন্যান্য যে নিরাপত্তা ফিচার নিয়ে কাজ করছে তার মধ্যে আছে কিশোর বয়সীদের ট্যাগ করার সময় অনুমতি নেওয়ার ফিচার; ২০২২ সাল নাগাদ ফিচারটি বাজারজাত করার পরিকল্পনা ইনস্টাগ্রামের।

এই ফিচারটি ‘ডিফল্ট’ অবস্থায় পোস্টে কিশোর বয়সীদের ট্যাগ বা ‘মেনশন’ করতে দেবে না। এছাড়া জানুয়ারি মাসে ইনস্টাগ্রামে একসঙ্গে অনেক কনটেন্ট মুছে দেওয়ার ফিচারও আসছে বলে জানা যায় ভার্জের প্রতিবেদনে।

তবে এ প্রসঙ্গে ফেসবুকের সমালোচনাকারীদের মধ্যে অন্যতম সিনেটর মার্শা ব্ল্যাকবার্ন নিউইয়র্ক টাইমসকে বলেন, ‘প্যারেন্টাল গাইড উন্মুক্ত করে মেটা নিজের ভুলের ওপর থেকে নজর সরাতে চাইছে। টাইমার এবং কনটেন্ট নিয়ন্ত্রণের ফিচারগুলো শুরু থেকেই ব্যবহারকারীর হাতে থাকা উচিত ছিল। কিন্তু তারা যা করছে, আমি এবং আমার সহকর্মীরা তা ঠিকই বুঝতে পারছি।’

প্রযুক্তি জায়ান্ট ইনস্টাগ্রাম বলছে, ব্যবহারকারীদের ‘ডিজিটাল ফুটপ্রিন্ট’ ব্যবস্থাপনার সুযোগ দেওয়ার লক্ষ্যেই ফিচারটি তৈরি করা হয়েছে। নিজস্ব পোস্টে নতুন ফিচারগুলোর সমর্থনে বিভিন্ন খাতের বিশেষজ্ঞ এবং গবেষকদের লিখিত বক্তব্য যোগ করেছে ইনস্টাগ্রাম।