শিরোপা ধরে রাখার মিশনে ভারতের বিপক্ষে মাঠে নামছে বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবলে নারীদের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই। আগের লড়াইয়ে নেপালকে হারিয়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছিল বাংলাদেশই। সেবার অনূর্ধ্ব-১৮ চ্যাম্পিয়নশিপ হয়েছিল। নাম বদলে এবার সেই টুর্নামেন্টই অনুর্ধ্ব-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপ। শিরোপা ধরে রাখার লক্ষ্যে এরই মধ্যে বাংলাদেশ উঠে গেছে ফাইনালে। যেখানে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ শক্তিশালী ভারত।

বাংলাদেশ সময় আর কিছুক্ষণ পরই, সন্ধ্যা ৬টায় কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে শিরোপার লড়াইয়ে মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ এবং ভারতের মেয়েরা।

লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে শ্রীলংকার জালে ১২ গোল দিয়ে ফাইনালে উঠেছে মারিয়া-আঁখিরা। ভারত ফাইনালে উঠেছে নেপালকে হারিয়ে। লিগপর্বে ১৯ গোল করে বাংলাদেশ অক্ষত রেখেছে নিজেদের পোস্ট, ভারত ৯ গোল দিয়ে খেয়েছে একটি।

লিগ পর্বে পরস্পর মুখোমুখিতে ভারতের জালে একটি বল পাঠিয়েছে বাংলাদেশ। দুই দলের আগের চার ম্যাচ বিশ্লেষণ করলে বাংলাদেশকে একটু হলেও এগিয়ে রাখতে হচ্ছে ফুটবলবোদ্ধাদের।

২০১৮ সালে ভুটান থেকে এই টুর্নামেন্টের (তখন ছিল অনূর্ধ্ব-১৮) ট্রফি নিয়ে ঘরে ফিরেছিল বাংলাদেশের মেয়েরা। ফাইনালে ১-০ গোলে হারিয়েছিল নেপালকে।

শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচকে সামনে রেখে মঙ্গলবার বাফুফে ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে স্বাগতিক কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বলেন, ‘টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই আমাদের লক্ষ্য ছিল ম্যাচ বাই ম্যাচ খেলে দর্শকদের উপভোগ্য ম্যাচ উপহার দেয়া। প্রাথমিক এই লক্ষ্য পুরণ করার পর ভারতের বিপক্ষে বুধবারের ফাইনালে দল আরো উজ্জীবিত হয়ে খেলবে।’

টুর্নামেন্ট জুড়ে ভারত যথেষ্ট ভাল খেলেছে বলে দাবী করেছেন সফরকারী দলটির প্রধান কোচ অ্যালেক্স এমব্রোস। ফাইনালের আগে দল আগের ভুল-ভ্রান্তি শুধরে নিয়েছে উল্লেখ করে বলেন, শিরোপা জয়ের লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামবে তার শিষ্যরা।

রাউন্ড রবিন লিগ পর্বে বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচে নেপালের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে পয়েন্ট ভাগাভাগি করলেও পরবর্তীতে পেছনে ফিরে তাকায়নি। ভুটানকে ৬-০ গোলে, শক্তিশালী ভারতকে ১-০ গোলে এবং লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ১২-০ গোলের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে গ্রুপ সেরা হিসেবে ফাইনালে জায়গা করে নেয় ছোটনের শিষ্যরা।

অপরদিকে ভারত শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৫-০ গোলে জয় নিয়ে লিগ পর্ব শুরু করার পর ভুটানকে হারায় ৩-০ গোলে। তবে তৃতীয় ম্যাচে স্বাগতিকদের সঙ্গে আর পেরে উঠেনি উপমহাদেশের এই পাওয়ার হাউজ। হার মেনেছে ১-০ গোলে। লিগের শেষ ম্যাচে নেপালকে ১-০ গোলে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করে তারা।