রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চেয়ারম্যানকে গুলি

কক্সবাজার সংবাদদাতা : কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার লেদা রোহিঙ্গা শিবিরের ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান আবদুল মতলবকে গুলি করেছে দুর্বৃত্তরা। ইয়াবা ব্যবসায় বাধা দেয়ায় এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে জানিয়েছেন রোহিঙ্গারা।

রোববার রাত সাড়ে ১০টার দিকে হ্নীলা ইউনিয়নের লেদা রোহিঙ্গা শিবিরে এ ঘটনা ঘটে। টেকনাফ নিবন্ধিত নয়াপাড়া রোহিঙ্গা শিবিরের পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর বলেন, রোববার রাতে লেদা রোহিঙ্গা শিবিরের চেয়ারম্যান মতলবকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, লেদা রোহিঙ্গা শিবিরের এ-ব্লকে রাতে শিবিরের প্রহরীদের দায়িত্ব ভাগ করে দিয়ে মোহাম্মদ হোসেন নামে এক রোহিঙ্গার পানের দোকানে বসেছিলেন আবদুল মতলব। এ সময় হঠাৎ একদল অস্ত্রধারী এসে তাকে গুলি করে হত্যার চেষ্টা করে। পাশের লোকজন এগিয়ে আসলে অস্ত্রধারীরা পালিয়ে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে রোহিঙ্গা শিবিরের আইএমও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে কক্সবাজার হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় রোহিঙ্গা শিবিরে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

রোহিঙ্গারা জানিয়েছেন, রঙ্গিখালী ও আলীখালী এলাকার কিছু অস্ত্রধারী রোহিঙ্গা শিবিরে ইয়াবা ব্যবসা করে আসছিল। আবদুল মতলব চেয়ারম্যান দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে রোহিঙ্গা শিবিরে ইয়াবা বিক্রেতাদের বাধা হয়ে দাঁড়ান। গত কয়েকদিন চেয়ারম্যান মতলবের সহযোগিতায় ৬০ পিস ইয়াবাসহ এক ইয়াবা ব্যবসায়ীকে আটক করে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্র জানায়, চেয়ারম্যান আবদুল মতলব শরণার্থী হয়ে মিয়ানমারের রাখাইন থেকে বাংলাদেশে এসেছেন ২০০৩ সালে। এরপর থেকেই ক্যাম্পে অবস্থান করছেন তিনি।