যেভাবে হবে ইবির অনলাইন পরীক্ষা

যেভাবে হবে ইবির অনলাইন পরীক্ষা

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক : অনার্স এবং মাস্টার্সের চূড়ান্ত পরীক্ষার অনলাইনে নেয়ার অনুমোদন দিয়েছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি)।

মঙ্গলবার (১৭ আগস্ট) বিকেলে উপাচার্য অধ্যাপক শেখ আবদুস সালামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। পরে অনলাইন পরীক্ষা সংক্রান্ত একটি অফিস আদেশ জারি করা হয়েছে।

আদেশে বলা হয়, একাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্ধান্তের আলোকে বিভাগীয় একাডেমিক কমিটি পরীক্ষা গ্রহণের প্রস্তুতি নেবে।

আবেদন ফরম পূরণ
প্রচলিত ফরমের মতোই একটি পিডিএফ ফরম বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে আপলোড করা হবে। পরীক্ষার্থীরা ফরমটি হাতে লিখে পূরণ করে আবার স্ক্যান করার পর অনলাইন মাধ্যমে বিভাগীয় সভাপতির কাছে পাঠাবেন। পরে বিভাগীয় সভাপতি শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রস্তুত করে সেটি সংশ্লিষ্ট পরীক্ষা কমিটির সভাপতি এবং নিয়ন্ত্রকের কাছে পাঠাবেন।

পরীক্ষার ফি
পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পরীক্ষার্থীকে তার বিভাগ এবং আবাসিক হলের পাওনাসহ পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সব ফি পরিশোধ করতে হবে। ফি জমা না দিলে কর্তৃপক্ষ তার ফলাফল স্থগিত রাখবেন। এই ব্যবস্থায় সম্মতি জানিয়ে আবেদন ফরমের সঙ্গে অঙ্গীকারনামাও জমা দিতে হবে।

খাতা প্রস্তুত
পরীক্ষার্থীরা A4 সাইজের সাদা কাগজ ব্যবহার করে প্রতি পৃষ্ঠার ডান কোণায় নিজের রোল ও পৃষ্ঠা নম্বর লিখবেন। কাভার পেজের নমুনা পরীক্ষার আগেই শিক্ষার্থীদের দেয়া হবে।

তত্ত্বীয় কোর্সের পরীক্ষা
প্রতিটি কোর্সের ক্লাসে উপস্থিতি, কুইজ, প্রেজেন্টেশন, ইন-কোর্স, টিউটোরিয়াল, অ্যাসাইনমেন্টের সমন্বয়ে নির্ধারিত অভ্যন্তরীণ মূল্যায়ণ সম্পন্ন করবেন কোর্স শিক্ষক। তবে মোট নম্বরের ৪০ থেকে ৫০ শতাংশ নম্বরের বর্ণনামূলক, বহুনির্বাচনী, সংক্ষিপ্ত ধরনের প্রশ্ন তৈরি করে লিখিত পরীক্ষা নেয়া হবে। সংশ্লিষ্ট কোর্সের বাকি ৬০-৫০ শতাংশ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা নেয়া হবে। পুরো প্রক্রিয়াটিই হবে অনলাইনে।

ব্যবহারিক পরীক্ষা
শারীরিক উপস্থিতি ছাড়াই যদি ব্যবহারিক পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হলে অনলাইনেই তা নেয়া হবে। আর তা না হলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত স্থগিত থাকবে।

প্রজেক্ট এবং থিসিস কোর্সের পরীক্ষা
পরীক্ষা কমিটি অনলাইন প্লাটফরম ব্যবহার করে সংশ্লিষ্ট পরীক্ষার্থীদের প্রজেক্ট/থিসিসের প্রেজেন্টেশন এবং বিষয়বস্তু সংশ্লিষ্ট প্রশ্ন-উত্তরের মাধ্যমে মূল্যায়ণ করবেন।

বর্ষ/সেমিস্টারের মৌখিক পরীক্ষা
বহিরাগত সদস্যের উপস্থিতিতে অনলাইন প্লাটফরম ব্যবহার করে সংশ্লিষ্ট পরীক্ষার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা নেয়া হবে।

প্রশ্নপত্র সরবরাহ
পরীক্ষা শুরুর পাঁচ মিনিট আগে গুগল ক্লাসরুমে পরীক্ষার্থীদের প্রশ্নপত্র সরবরাহ করা হবে। সময় গণনার জন্য রেফারেন্স হিসেবে গুগল ঘড়ি ব্যবহার করা হবে।

উত্তরপত্র প্রস্তুতকরণ ও জমাদান
পরীক্ষা শেষে ক্যামস্ক্যানার বা অনুরূপ অ্যাপ ব্যবহার করে কভার পেজটি প্রথমে রেখে এবং উত্তর লেখা পৃষ্ঠাগুলোর ক্রম ঠিক রেখে পুরো উত্তরপত্র স্ক্যান করতে হবে। এরপর একটি সিঙ্গেল পিডিএফ ফাইল তৈরি করে উত্তরপত্র জমা দিতে হবে।