মালদ্বীপ প্রেসিডেন্টের কাছে বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূতের পরিচয় পেশ

মালদ্বীপ প্রেসিডেন্টের কাছে বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূতের পরিচয় পেশ

প্রবাস ডেস্ক : মালদ্বীপে নিযুক্ত বাংলাদেশের নতুন রাষ্ট্রদূত রিয়ার অ্যাডমিরাল এস.এম. আবুল কালাম আজাদ দেশটির প্রেসিডেন্ট ইব্রাহীম মোহাম্মদ সোলিহের কাছে তার পরিচয়পত্র পেশ করেছেন।

বুধবার (৬ এপ্রিল) সকালে মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট কার্যালয়ে পরিচপত্র পেশের জন্য এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। প্রেসিডেন্ট সোলিহ মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূতকে স্বাগত জানান। এ বাংলাদেশিকে অভিনন্দন জানান তিনি।

মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট কয়েক বছর ধরে মালদ্বীপের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ সরকার থেকে প্রদত্ত সহায়তার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

প্রেসিডেন্ট ও রাষ্ট্রদূত সম্প্রতি দুই দেশের মধ্যে উচ্চ পর্যায়ের সফরের সময় স্বাক্ষরিত সহযোগিতার নতুন চুক্তি বাস্তবায়নের মাধ্যমে বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতাকে আরও জোরদার করার উপায় নিয়ে আলোচনা করেন।

বৈঠকে আলোচনার অন্যান্য ক্ষেত্রগুলোর মধ্যে ছিলো কোভিড-১৯ টিকাদান, সক্ষমতা বৃদ্ধি, স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়ন, উচ্চ শিক্ষা ও অভিন্ন স্বার্থের বিষয়ে আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক সহযোগিতা।

প্রেসিডেন্ট ইব্রাহীম মোহাম্মদ সোলিহ, মালদ্বীপে বাংলাদেশের শ্রমিকদের জনসংখ্যার কথাও তুলে ধরেন। মালদ্বীপের অর্থনীতিতে অবদান রাখা প্রবাসী শ্রমিকদের সুরক্ষা ও সুরক্ষার জন্য সরকারের প্রতিশ্রুতির আশ্বাস দেন।

বাংলাদেশের নতুন রাষ্ট্রদূত মহামারি চলাকালীন মালদ্বীপে কর্মরত বাংলাদেশি নাগরিকদের দেওয়া সহায়তার জন্য ও বৈষম্য ছাড়াই সবার জন্য টিকা দেওয়ার সুযোগ সহজ করার জন্য মালদ্বীপ সরকারকে ধন্যবাদ জানান।

তিনি বাংলাদেশের জনগণের জন্য অ্যাস্ট্রাজেনেকা ভ্যাকসিন উপহার দেওয়ার জন্য মালদ্বীপ সরকারকে ধন্যবাদ জানান। এই সময়ে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন- দূতালায় প্রধান মোহাম্মদ সোহেল পারভেজসহ মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট অফিসের কর্মকর্তারা।

বৈঠক শেষে মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ও রাষ্ট্রদূত দুই দেশের মধ্যে দীর্ঘস্থায়ী দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও জোরদার করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। রিয়ার অ্যাডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদকে মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূত হিসেবে গত (২৩ ফেব্রুয়ারি) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

জানানো হয়, রিয়ার অ্যাডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদ ১৯৮৭ সালে বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে যোগ দেন। তিনি নৌবাহিনীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।

এস এম আবুল কালাম আজাদ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যোগ দেওয়ার আগে নৌবাহিনীর ফ্লিট কমান্ডারের দায়িত্বে ছিলেন। এস এম আবুল কালাম আজাদ সাবেক রাষ্ট্রদূত রিয়ার অ্যাডমিরাল নাজমুল হাসানের স্থলাভিষিক্ত হন।