ভারতীয় গায়িকা ব্রিটিশ রাজ পরিবারে করোনা ছড়িয়েছেন

বিনোদন ডেস্ক : ভারতীয় গায়িকা কণিকা কাপুর করোনায় আক্রান্ত। এ নিয়ে হৈ চৈ থামছেই না। লন্ডন থেকে ফিরে নিজেকে কোয়ারেন্টাইনে না নিয়ে সর্বত্র ঘুরে বেরিয়েছেন তিনি। অংশ নিয়েছেন গানের শোতেও।

অনেকের মধ্যেই করোনাভাইরাস ছড়িয়েছেন তিনি এ ধারণায় তার নামে মামলা করেছে পুলিশ। বর্তমানে লখনউয়ের সঞ্জয় গান্ধী হাসপাতালে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে তাকে।

এবার আলোচনা হচ্ছে লন্ডনে গিয়ে ব্রিটিশ প্রিন্স চার্লসের শরীরেও তিনি করোনাভাইরাস ছড়িয়েছেন।

বিশ্ব মিডিয়ায় খবর এসেছে কোভিড ১৯ থাবা বসিয়েছে ব্রিটেনের রাজ পরিবারেও। প্রিন্স চার্লস আক্রান্ত করোনায়।

প্রিন্স চার্লস করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর তার সঙ্গে কণিকার এক ফ্রেমের একটি ছবি ভাইরাল হতে শুরু করে সামাজিক মাধ্যমে। অনেকেই বিষয়টি নিয়ে ট্রল করতে শুরু করেছেন। অভিযোগ করেন, কণিকা কাপুরের সঙ্গে প্রিন্স চার্লসের দেখা হওয়ার পরই ব্রিটেনের রাজ পরিবারে থাবা বসায় কোভিড ১৯। বিষয়টি নিয়ে যখন সোশ্যাল মিডিয়া তোলপাড় হয়ে যায় তখন সামনে সামনে আসে সত্যিটা।

রিপোর্টে প্রকাশ, কণিকা কাপুরের সঙ্গে প্রিন্স চার্লসের দেখা হয়েছিল ঠিকই কিন্তু সেটা ২০১৫ সালে। ওই সালে প্রিন্স চার্লস এবং ডাচেস অব কর্নওয়াল ট্রেভেলস টু মাই এলিফ্যান্টস নামে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন ব্রিটেনে। ওই অনুষ্ঠানেই কণিকা কাপুরকে আমন্ত্রণ জানান প্রিন্স চার্লস। সেখানেই বলিউডের জনপ্রিয় গায়িকার সঙ্গে দেখা হয় প্রিন্স চার্লসের। শুধু তাই নয়, ব্রিটেনের রাজ পরিবারের ওই অনুষ্ঠানে প্রিন্স চার্লসের সঙ্গে জমিয়ে আড্ডা দিতেও দেখা যায় কণিকাকে। তাহলে ২০১৫ সালের ঘটনা টেনে এনে এবং সেই ছবি প্রকাশ করে কেন কণিকা কাপুরকে নিয়ে সমালোচনা করা হচ্ছে, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন অনেকে।

প্রসঙ্গত, ভারতের পাশাপাশি লন্ডনে স্থায়ী ঠিকানা রয়েছে কণিকা কাপুরের। ফলে ভারতের পাশাপাশি নিয়মিত লন্ডনে যাতায়াত করেন বলিউডের বেবি ডল গায়িকা।