‘বাংলাদেশে ১২০ নিউজিল্যান্ডে ১৮০ রানের সমান’

‘বাংলাদেশে ১২০ নিউজিল্যান্ডে ১৮০ রানের সমান’

‘বাংলাদেশে ১২০ নিউজিল্যান্ডে ১৮০ রানের সমান’
ক্রীড়া প্রতিবেদক : প্রথম দুই ম্যাচ হারলেও, তৃতীয়টিতে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। রোববার নিজেরা আগে ব্যাটিং করে ১২৮ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় তারা। বিপরীতে স্বাগতিকদের মাত্র ৭৬ রানে অলআউট করে ম্যাচ জিতে নেয় ৫২ রানের বড় ব্যবধানে।

বাংলাদেশ সফরে এসে মাত্র তিন ম্যাচেই এখানের কন্ডিশন ও টি-টোয়েন্টি খেলার ধাঁচটা বুঝে ফেলেছে কিউইরা। সিরিজের তৃতীয় ম্যাচ জিতে দলের বাঁহাতি ব্যাটসম্যান হেনরি নিকোলস জানিয়েছেন, বাংলাদেশে ১২০ রানই মূলত নিউজিল্যান্ডে ১৮০ রানের সমান। তাই তারা দেখেশুনে খেলে ১২০-১৩০ রানের দিকেই ছুটেছেন।

সোমবার অনুশীলন নেই দুই দলের। টিম হোটেল থেকে ভার্চুয়াল প্রেস কনফারেন্সে নিকোলস বলেছেন, ‘এখানে (বাংলাদেশ) কন্ডিশন পুরোপুরি ভিন্ন এবং কঠিন। এখানে আসার আগেই এটা আমরা জানতাম। আমার মতে, এখানে টি-টোয়েন্টি খেলার একটা আলাদা ধাঁচ রয়েছে। এখানের ১২০-১৩০ রান আমাদের দেশে ১৮০ রানের সমান।’

সিরিজে নিউজিল্যান্ডের প্রথম জয়ে বড় অবদান নিকোলসের। রোববার ইনিংসের ১১ ওভারের মধ্যে মাত্র ৬২ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল কিউইরা। সেখান থেকে শেষ পর্যন্ত ১২৮ রানের সংগ্রহ পায় তারা। ষষ্ঠ উইকেটে টম ব্লান্ডেলকে সঙ্গে নিয়ে অবিচ্ছিন্ন ৬৬ রান যোগ করেন নিকোলস।

দলকে নির্ভার করার পথে ইনিংসের সর্বোচ্চ ৩৬ রান করেন এ বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। নিজের ব্যাটিং পরিকল্পনা সম্পর্কে তার ভাষ্য, ‘আমার কাছে বিষয়টা হলো মিডল অর্ডারে নেমে সেরা পথটা খুঁজে নেয়া। গতকাল (রোববার) আমি ও টম (লাথাম) মিলে কিছু সময় ধরে ইনিংস গড়ার কাজ করেছি। শেষ পর্যন্ত পার স্কোর দাঁড় করাতে পারাটা ভালো ছিলো।’

রোববারের ম্যাচটিতে কিউইদের ব্যাটিংয়ের শুরুটাও আগের দুই ম্যাচের তুলনায় বেশ ভালো ছিল। প্রথম পাওয়ার প্লে’তে তারা মাত্র ১ উইকেট হারিয়ে করে ফেলে ৪০ রান। করোনা থেকে উঠে দলের সঙ্গে যোগ দেয়া ফিন অ্যালেন করেন ১০ বলে ১৫ রান। তার শুরুর আক্রমণটা দলের জন্য ইতিবাচক ছিল জানালেন নিকোলস।

তার মূল্যায়ম, ‘আমাদের টপঅর্ডারে যারা আছে, তারা জানে এখানে দেশের কন্ডিশন থেকে ভিন্ন থাকবে সব। দেশে শুরু থেকেই আগ্রাসী খেলা যায়। যেখানে তারা (পাওয়ার প্লেতে) ৭০-৮০ রান করে ফেলতে পারে। কিন্তু এখানে সেটা ৩০ বা ৪০ হতে পারে। রোববার ফিন (অ্যালেন) যেভাবে প্রতিপক্ষের ওপর আধিপত্য বিস্তার করেছে, তাতে সবাই একটা আত্মবিশ্বাস পেয়েছে।’