বাংলাদেশে বিনিয়োগ বাড়াতে আগ্রহী যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশে বিনিয়োগ বাড়াতে আগ্রহী যুক্তরাজ্য

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশে বিনিয়োগ বাড়াতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন যুক্তরাজ্যের ব্যবসায়ীরা। এজন্য বিনিয়োগ-সহায়ক পরিবেশ চান তারা।

সোমবার (২৮ মার্চ) ব্রিটিশ পার্লামেন্ট সদস্য ও বাংলাদেশে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বাণিজ্য দূত রুশনারা আলী এ আগ্রহের কথা জানান। রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) ভবনে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমানের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে এ আগ্রহের কথা জানান তিনি।

বৈঠকে বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্পর্ক বাড়ানোর উপায়সহ বিভিন্ন দ্বিপাক্ষিক বিষয়ে আলোচনা হয়। এ সময় বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে সালমান এফ রহমান জানান, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বাণিজ্য দূত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সেবার মান উন্নত করা ও বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য অনুকূল পরিবেশ নিশ্চিতের করার কথা বলেছেন। আমরা তাকে জানিয়েছি, আন্তর্জাতিক পরিষেবা নিশ্চিত করার জন্য শাহজালাল বিমানবন্দরে তৃতীয় টার্মিনাল নির্মাণ করা হচ্ছে। আগামী বছরের মধ্যে এ কাজ শেষ হবে।

পরে সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ের সময় ব্রিটিশ এমপি রুশনারা আলী বলেন, যুক্তরাজ্য-বাংলাদেশ সম্পর্ক একটি সুদৃঢ় অবস্থানে দাঁড়িয়ে আছে। এক্ষেত্রে দুই দেশের বাণিজ্যিক সম্পর্কের বিকাশ খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

ব্রিটিশ এই সংসদ সদস্য আরও বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ নিয়ে একসঙ্গে কাজ করার অনেক ক্ষেত্র আছে। আমরা এই সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে চাই।

রুশনারা আলী জানান, অনেক ব্রিটিশ কোম্পানি বাংলাদেশে তাদের ব্যবসা পরিচালনার আগ্রহ প্রকাশ করছে। এ সময় ভবিষ্যতে ব্যবসা পরিচালনা করতে ইচ্ছুক ব্রিটিশ বিনিয়োগকারীদের জন্য একটি অনুকূল ব্যবসায়িক পরিবেশে নিশ্চিতের আহ্বান জানান তিনি।

জবাবে সালমান এফ রহমান বলেন, বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তৈরি করা একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া। বাংলাদেশ সরকার বিনিয়োগকারীদের ব্যবসার অনুকূল পরিবেশ নিশ্চিত করতে কাজ করছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা ইতোমধ্যে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে ওয়ান স্টপ সার্ভিস সেন্টার চালু করেছি। ডিজিটাল অনলাইন পরিষেবাও প্রদান করা হচ্ছে । ফলে পরিবেশ ধীরে ধীরে উন্নত হচ্ছে।

ওয়াইপার আঞ্চলিক দায়িত্ব পেলো বিডা
ওয়ার্ল্ড অ্যাসোসিয়েশন অব ইনভেস্টমেন্ট প্রমোশন এজেন্সির (ওয়াইপা) দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালকের দায়িত্ব গ্রহণ করেছে বিডা। এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

এতে বলা হয়, সোমবার আরব আমিরাতের বাণিজ্যিক রাজধানী দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত ওয়াইপার স্টিয়ারিং কমিটির এক হাইব্রিড বৈঠকে বিডাকে ২০২১-২০২৩ মেয়াদের জন্য দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালকের দায়িত্ব প্রদানের সিধান্ত নেয়।

আরও জানানো হয়, ওয়াইপা জাতিসংঘের কনফারেন্স অন ট্রেড অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট আইন দ্বারা পরিচালিত একটি আন্তর্জাতিক বেসরকারি সংস্থা, যা ১৯৯৫ প্রতিষ্ঠিত হয়। ওয়াইপা ইনভেস্টমেন্ট প্রমোশন এজেন্সিগুলোর (আইপিএ) একটি ফোরাম হিসেবে কাজ করে, যা সদস্য দেশগুলোর মধ্যে নেটওয়ার্কিং তৈরি, বিনিয়োগ আকর্ষণ, বহির্মুখী বিনিয়োগ, আঞ্চলিক সহযোগিতা, প্রযুক্তিগত সহায়তা ও তথ্য আদান প্রদান করে থাকে।

এ বিষয়ে বিডার নির্বাহী সদস্য (অতিরিক্ত সচিব) ও ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী চেয়ারম্যান মোহসিনা ইয়াসমিন বলেন, বাংলাদেশ উচ্চ-প্রবৃদ্ধির অর্থনীতির দেশ হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করেছে ও কৌশলগত খাতে বিনিয়োগের বিভিন্ন সুযোগ তৈরি করছে। এমনকি বিশ্বব্যাপী কোভিড-১৯ মহামারি সত্ত্বেও বাংলাদেশ ২০২৬ সালের মধ্যে ৫০০ বিলিয়ন ডলারের অর্থনীতির দেশ হিসেবে আবির্ভূত হবে।

তিনি আরও বলেন, বিডা দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালকের দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে বৃহত্তর আঞ্চলিক সহযোগিতা অর্জনের দিকে মনোনিবেশ করবে। বিশেষ করে সদস্য দেশগুলোর সক্ষমতা বৃদ্ধি ও তথ্য আদান-প্রদানসহ সার্বিক সহযোগিতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কাজ করবে। এছাড়াও বিডা পারস্পরিক সহযোগিতার মাধ্যমে শক্তিশালী এবং কাঠামোগত নেটওয়ার্কিং স্থাপন ও প্রাইভেট সেক্টরগুলির মধ্যে সংযোগ তৈরির কাজ করে যাবে।