বকেয়া বেতনের দাবিতে পুলিশ-শ্রমিক সংঘর্ষে আহত ১০

জামালপুর সংবাদদাতা : জামালপুরের সরিষাবাড়িতে বন্ধ মিল চালু ও বকেয়া বেতনের দাবিতে রাস্তায় গাছের গুঁড়ি ও টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে তিন ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে রাখেন আলহাজ্ব জুট মিলের বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। অবরোধ চলাকালে পুলিশ ও শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষে পাঁচ পুলিশসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে।

আহতদের মধ্যে পুলিশ কনস্টেবল তাসলিমা ও নারী শ্রমিক জাহানারা বেগমকে সরিষাবাড়ি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে আলহাজ্ব জুট মিলের শ্রমিকরা মিল চালু ও বকেয়া বেতনের দাবিতে মিল গেইটের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করেন। সেখান থেকে তারা মিছিল নিয়ে সরিষাবাড়ি রেলওয়ে স্টেশনের সামনে উপজেলার প্রধান সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। বিক্ষুব্দ শ্রমিকরা দুপুর ১২টা থেকে ২টা পর্যন্ত রাস্তায় গাছের গুঁড়ি ফেলে ও টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করেন। এসময় যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

সড়ক থেকে তাদের সারানোর চেষ্টা করলে পুলিশের সাথে শ্রমিকদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এসময় শ্রমিকরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট পাট-কেল নিক্ষেপ করেন। পুলিশও শ্রমিকদের উপর লাঠিচার্জ করে। এতে পুলিশসহ কমপক্ষে ১০ আহত হন। পরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সরিষাবাড়ি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মহব্বত কবির বলেন, প্রায় তিন ঘণ্টার মতো সড়ক অবরোধ শেষে শ্রমিকদের সড়ক থেকে সরানোর চেষ্টা করলে তাদেও সাথে পুলিশের সংঘর্ষ বাঁধে। এসময় পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হন।

শ্রমিকরা জানান, আলহাজ্ব জুট মিল কর্তৃপক্ষ শ্রমিকদের বেতন-ভাতা না দিয়েই গত ২১ জুলাই মিল বন্ধ করে দেন। এতে প্রায় তিন হাজার শ্রমিক-কর্মচারী বেকার হয়ে পড়েন। বকেয়া বেতনের প্রদানের জন্য মিল কর্তৃপক্ষের সাথে বারবার যোগাযোগ করলে বেতন পরিশোধে মালিক পক্ষের লোকজন অস্বীকার করায় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা সড়ক অবরোধের ডাক দেন।

Inline
Inline